×
ভাইরাল

সবুজ প্রকৃতির মাঝে কালো পোশাকে জনপ্রিয় বাংলা গানে উদ্দাম নাচ সুন্দরী যুবতীর, ভাইরাল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

পূর্বে যেখানে নিজের প্রতিভা প্রদর্শনের জন্য দিতে হতো অডিশনের লম্বা লাইন, সেখানে বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে মুঠোফোনের এক ক্লিকের মাধ্যমেই নিজের প্রতিভাকে পৌঁছে দেওয়া যায় লক্ষাধিক মানুষের কাছে। আর এভাবেই যেমন ভাইরাল হচ্ছেন নামি-দামি শিল্পীরা তেমনি তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দেখা মিলে বহু সাধারণ মানুষের। এককথায়, একদিকে মানুষ যেমন তাদের প্রতিভা প্রস্ফুটিত করে তুলছেন তেমনি অন্যদিকে এর মাধ্যমে নিজের পরিচিতিও গড়ে তুলছেন। সম্প্রতি, নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনি এক যুবতির অসাধারন নাচের ভিডিও।

বিজ্ঞাপন

আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম গুলির মধ্যে অন্যতম ইউটিডব। যেখানে অতি সহজেই মানুষ তার প্রতিভাকে তুলে ধরতে পারছেন এবং এর মাধ্যমে নিজের পরিচিতি গড়ে তুলছেন। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ার অন্যতম পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন মৌ, যার ইউটিউব চ্যানেলের নাম ড্যান্স স্টার মৌ। নিজের দক্ষ নাচের জন্য আজ নেটিজেনদের একাংশের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছেন তিনি। এমনকি তার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব সংখ্যাও কম নয়। এবারে এই যুবতীর আরো এক নাচের ভিডিও দেখা মিলল নেটদুনিয়ায়।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, নীল আকাশের নীচে এবং সবুজ ক্ষেতের মাঝেই সকালের সোনালী রৌদ্দুরকে গায়ে লাগিয়ে অসাধারণ নৃত্য পরিবেশন করছেন মৌ। সেই সময় তিনি যেই গানটিতে নৃত্য পরিবেশন করছেন সেটি হল বাংলা জনপ্রিয় ‘নবাব’ (Nabab) ছবির ‘দেবো তোকে দেবো ষোল আনা’ (Debo Toke Debo Sholoana) গানটি। সেই গানের তালে কালো রঙের ঘাঘড়া-চোলি ও তার সাথে মানানসই জুয়েলারি পরে দুর্দান্ত নৃত্য পরিবেশন করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন মৌ। এছাড়াও মৌ যতবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের নাচ পরিবেশন করেছেন তার থেকে স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে তিনি একজন দক্ষ নৃত্যশিল্পী।

বলাই বাহুল্য প্রতিবারের মতো এবারও মৌ এর নাচ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়েছে দ্রুতগতিতে। ইতিমধ্যে তাঁর নাচ পৌঁছে গিয়েছে ১০৪ হাজার মানুষের কাছে সেইসঙ্গে লাইক এসেছে প্রায় ২ হাজারের ঘরে। এছাড়াও তার কমেন্ট বক্স ভরে উঠেছে শত শত মানুষের প্রশংসা মূলক মন্তব্যে। সেখানে কেউ বলেছেন-‘ মৌ আমাদের অনেক সুন্দর নাচ উপহার দিয়েছে। মৌ এবং তার সহযোগী সবার জন্য আমার শুভেচ্ছা রইল।’ তো অন্য কেউ বলেছেন-‘ তোমায় নাচ অত্যন্ত সাবলীল। তোমার রুপ এবং নাচের মাধুর্য রুপোলি পর্দার যোগ্য।’

Related Articles