×
অফবিট

পড়াশুনা ছেড়ে নিজের কোম্পানি বানিয়ে সকলকে তাক লাগলো ১৩ বছরের বালক, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

সাধারনত শিশুদের খেলনা নিয়ে খেলতেই দেখেছেন। কিন্তু কখনো দেখেছেন কি, কোনও শিশু খেলনা খেলা ছেড়ে, শুধুমাত্র কম্পিউটার নিয়ে খেলেই সাফল্যের উচ্চশিখরে পৌঁছে গিয়েছে? হ্যাঁ, আজ এমন একজন অবাক করা শিশুর গল্প করব, যিনি এই মুহূর্তে কম্পিউটার নিয়ে খেলেই সাফল্যের উচ্চতা স্পর্শ করেছে। হ্যাঁ, সেই তাজ্জব বানানো কিশোরটির নাম তানিশ মিত্তাল। ৭ নভেম্বর ২০০৫ সালে জন্মগ্রহণ করেছেন তানিশ।

বিজ্ঞাপন

ছোটবেলা থেকেই কম্পিউটারের প্রতি তাঁর আগ্রহ চূড়ান্ত ছিল। এমনকি পড়াশোনার চেয়ে কম্পিউটারেই বেশি আগ্রহ ছিল তাঁর। বর্তমানে তানিশ মিত্তল হলেন Innowebs Tech নামে একটি কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও। হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন, মাত্র ১৭ বছর বয়সেই একটি কোম্পানির সিইও হয়ে গিয়েছেন। যেখানে, মানুষ একাধিক পরিশ্রম করেও এই পজিশনে যেতে পারেনা। তানিশ ৫ বছর ধরে এই কোম্পানিটি চালাচ্ছে। অষ্টম শ্রেণিতে থাকাকালীনই স্কুল ছেড়ে দেন তিনি। এরপর কম্পিউটারে ওয়েব ডিজাইন এবং ফটোশপের কাজ করতে শুরু করেন তিনি।

এত কম বয়সে ‘অ্যাডভান্সড পিজি ডিপ্লোমা লেভেল কোর্স ইন অ্যানিমেশন অ্যান্ড সাইবার সিকিউরিটি’-এর মতো কোর্স করে ফেলেছেন। তানিশের বাবা নিতিন মিত্তাল একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, তিনিই ছেলেকে ৬ বছর বয়স থেকে কম্পিউটারের প্রাথমিক শিক্ষা দেন। তিনি ছেলের এই প্রতিভা দেখেই তাঁর স্কুল ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্তে রাজি হয়েছিলেন। অষ্টম শ্রেণীতে পড়তে পড়তেই তানিশ অনেক ধরনের সফটওয়্যারে কাজ করা শুরু করেন। তিনি ওয়েব ডিজাইন, এথিক্যাল হ্যাকিং এর মত অনেক বিষয়েই দক্ষ। ৯ বছর বয়স পর্যন্ত, তানিশ ইন্টারনেটের সাহায্যে কম্পিউটারে অ্যানিমেশন, ভিডিও এডিটিং, ফটোশপ এবং অ্যানিমেশনের মতো অনেক কাজ শিখেছেন।

স্কুল ছাড়ার পর তানিশ একটি কারিগরি প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্ত অল্প বয়সের কারণে তিনি কোথাও ভর্তি হতে পারেননি। এরপর তানিশের বাবা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে তাঁকে ভর্তি করান। আগে যে প্রতিষ্ঠানগুলো তানিশকে কম বয়সের কারণে প্রত্যাখ্যান করেছিল এখন তাঁরাই তানিশের প্রতিভা দেখে মুগ্ধ। এখন সম্পূর্ণ নিজস্ব দক্ষতায় তানিশ এই বয়সেই একটুও কোম্পানির সিইও হয়ে গিয়েছেন।

Related Articles