×
নিউজ

কৃষ্ণনগরের যুবক পেলেন Google-এ চাকরি, বেতন দেড় কোটি টাকা

বিজ্ঞাপন

গুগলে দেড় কোটি টাকা বেতনের চাকরি পেলেন আমাদের রাজ্যের দেবর্ষি মৈত্র। গুগলে, চাকরি একি কম কথা নাকি! ছেলেটি নদিয়ার কৃষ্ণনগর ঘূর্ণির বাসিন্দা। দিন তিনেক আগেই গুগলের অফিস থেকে তাঁর চাকরি নিশ্চিত একটি মেইল পায় সে। মাত্র ২৩ বছর বয়সেই ছেলের এরকম সাফল্যে দেখে স্বাভাবিকভাবেই গর্বিত তাঁর পরিবার থেকে গোটা বাংলা। অত্যন্ত সাদামাটা তাঁর পরিবার। সূত্রের খবর, শীঘ্রই তিনি লন্ডনে চলে যাবেন, গিয়ে চাকরিতে যোগদান করবেন। সম্পূর্ণ নিজের তাগিদেই দেবর্ষি আজ এই জায়গায় পৌঁছেছেন বলেই জানিয়েছেন দেবর্ষির মা। তবে ছোটবেলায় ছেলে-মেয়ের ভিত গড়েছিলেন, দেবর্ষির বাবা বাদল মৈত্র, একথা নিজেই জানিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বাদল মৈত্র পেশায় প্রাক্তন গৃহশিক্ষক, তবে বর্তমানে তিনি গ্রিলের দোকানের একজন ব্যবসায়ী। ছোটবেলা থেকেই ছেলে-মেয়েকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছিলেন তিনি। তারই ফসল বোধহয় এটি। তবে ছেলে যে এত কোটি টাকার চাকরি পাবে, তা কল্পনাতেও ভাবতে পারেননি দেবর্ষির মা বকুল মৈত্র। জানা গিয়েছে, ঘূর্ণির একেবারে সাদামাটা, নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান দেবর্ষি মৈত্র। দেবর্ষির মা সাধারণ গৃহবধূ এবং তাঁর দিদি স্কুল শিক্ষিকা। বিশেষত, এলাকার কৃতি সন্তান হিসাবেই পরিচিত দেবর্ষি।

২০১৬ সালে কৃষ্ণনগর হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশ করেন দেবর্ষি। এরপরে কৃষ্ণনগর কলেজিয়েট স্কুলে ভর্তি হন তিনি। কলেজিয়েট স্কুল থেকেই উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে জয়েন্ট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে ভর্তি হন তিনি। এরপর স্নাতক স্তরে চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা শেষে দেবর্ষি নিজেই গুগল-এর সঙ্গে যোগাযোগ করে সেখানকার পরীক্ষার একেকটি চরম কঠিন গন্ডি পেরিয়ে অবশেষে মনোনীত হন ঘূর্ণির যুবক। দেবর্ষির সাফল্যে একদিকে যেমন খুশি তার মা-বাবা, তেমনি খুশি তাঁর শিক্ষকরাও।

দেবর্ষির মা বকুল মৈত্র বলেন, “ছেলে প্রতিষ্ঠিত হবে এটা জানতাম। কিন্তু এত ভাল, এত বড় চাকরি পাবে ভাবিনি। খুবই সাদামাটাভাবে বড় হয়েছে। তবে ছোট থেকে নিজস্ব চেতনাবোধ ভীষণ ছিল। সেটা দিয়েই, নিজের তাগিদেই আজ এই জায়গায় পৌঁছেছে।” দেবর্ষি সারাদিনই পড়াশোনা নিয়েই থাকতেন, খেলাধুলার সময় বেশি দিতেন না তিনি। তবে দেবর্ষি শুধু গুগল (Google) নয়, বেঙ্গালুরুর একটি বড় কোম্পানি থেকে অ্যামাজনেও (Amazon) চাকরি পেয়েছিলেন। তবে গুগল সবচেয়ে বড় সংস্থা তাই সেখানেই আপাতত যোগদান করবেন তিনি।

Related Articles