×
নিউজ

মঙ্গলে দাঁড়িয়ে পৃথিবীর ছবি তুললো নাসার কিউরিয়োসিটি রোভার, কেমন লাগছে আমাদের গ্রহকে?

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি নাসা একটি ছবি প্রকাশ করেছে, যেটি কিনা মঙ্গলগ্রহ থেকে কিউরিয়োসিটি রোভারের তোলা আমাদের পৃথিবীর ছবি। আর যা দেখে তাজ্জব হয়ে গিয়েছেন সবাই। আসলে লালগ্রহ থেকে পৃথিবীকে কেমন লাগে, তা জানতে এতদিন কৌতূহলের শেষ ছিল না আমজনতার মধ্যে। অবশেষে সেই কৌতূহলের অবসান হল। রোভারের তোলা সেই ছবি টুইটারে পোস্ট করে নাসা বলেছে, ‘অসাধারণ এই ছবিটি তোলা হয়েছে মঙ্গলগ্রহ থেকে। হ্যাঁ, মঙ্গলগ্রহই। আর ওই যে বিন্দু মতো যেটা দেখা যাচ্ছে সেটি হল আমাদের সকলের প্রিয় পৃথিবী।’ আর সেই ছবি রিটুইট করে শিল্পপতি আনন্দ মহীন্দ্রা জানিয়েছেন, ‘এই ছবি একটাই জিনিস শেখায়, তা হল বিনম্রতা।’ আপনি কি এই ছবিতে আমাদের পৃথিবীকে দেখতে পাচ্ছেন?

বিজ্ঞাপন

২০১৩-র ৬ অগস্ট মঙ্গলে পা রেখেছে কিউরিয়োসিটি রোভার। তারপর থেকেই লালগ্রহ থেকে একাধিক ছবি নাসাকে পাঠিয়ে চলেছে সেটি। এ বার লালগ্রহের মাটি থেকে পৃথিবীর রূপ পাঠাল রোভার। নাসা জানিয়েছে, এই ছবিটি যখন তোলা হয়েছে, তখন পৃথিবী থেকে লালগ্রহের দূরত্ব ছিল প্রায় ১৬ কোটি কিলোমিটার। তবে এই প্রথম নয়, পৃথিবী থেকে মহাকাশ অভিযানের নানা বৈজ্ঞানিক গবেষণা প্রতিনিয়ত করে চলেছে। তারই একটি নিদর্শন এই ছবি। যদিও কিছুদিন আগেই শোনা গিয়েছিল, নাসার পাঠানো একটি মহাকাশ টেলিস্কোপ বিভিন্ন আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

জানা গিয়েছিল, ওই টেলিস্কোপটির ১৮ টি সোনার ধাতুর দ্বারা আবৃত আয়নাগুলির মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্যভাবে ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। তবে এই ধরনের ঘাত-প্রতিঘাতের কথা আগাম ভেবে বিজ্ঞানীরা এর মধ্যে প্রযুক্তিগত ‘ইন বিল্ট’ কিছু ব্যবস্থা তৈরি করে রেখেছিলেন। কিন্তু বাস্তবে তা কার্যকরী হয়নি। ‘নাসা’ ‘ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি’ এবং ‘কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সি’র যৌথ প্রচেষ্টায় এই টেলিস্কোপটি তৈরি করা হয়েছিল। আর এই ওয়েব টেলিস্কোপটির পাঠানো ছবিতে মুগ্ধ হয়েছিল সারা বিশ্ব। যার নাম ছিল মাইক্রোমেটোরোড।

আজকাল বিজ্ঞান এতটাই উন্নত হয়ে গিয়েছে যে, এখন মানুষ পৃথিবীর বাইরেও দুনিয়ার বিভিন্ন তথ্য মহাকাশ বিজ্ঞানীদের মাধ্যমে জানতে পারছেন। আর মহাকাশে নানা গ্রহের যান পাঠানো হচ্ছে। কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছিল, যে জাপানের বিজ্ঞানীরা মহাকাশের সঙ্গে পৃথিবীর সংযোগস্থাপন করার জন্যে একটি ট্রেন এবং একটি বুলেট ট্রেন আবিষ্কার করার পরিকল্পনা করছেন, হ্যাঁ অবিশ্বাস্য করেছে সবাইকে। তবে এই বিষয়ে কতটা খবর সফল হবে বিজ্ঞানীরা তা ভবিষ্যতই বলবে। আর এখন লাল গ্রহ থেকে পৃথিবীর অতি সুন্দর রূপ পরতে পরতে উপভোগ করছেন ধরিত্রীবাসীরা।

Related Articles