×
অফবিটনিউজ

আমেরিকার চাকরির অফার ফিরিয়ে দিয়ে খুলেছিলেন ছোট্ট ব্যাবসা, আজ দাঁড় করিয়েছেন ৩৭ হাজার কোটির কোম্পানি

বিজ্ঞাপন

কানাডা থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে, আমেরিকান যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক ভালো ইনকাম প্যাকেজে তিন বছর চাকরি করার পর চাকরি ছেড়ে দেশে ফিরে আসেন পীয়ুষ বনসাল (Peyush Bansal)। তারপরে শুরু করেন নিজের ব্যবসা। আজ লেন্সকার্ট (Lenskart) সারা বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে থাকলেও, পীয়ুষ বনসালের শুরুর লড়াইটা ছিলো কঠিন।

বিজ্ঞাপন

পীয়ুষ বনসালের বাবা ছিলেন একজন চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যন্ট। তিনি চাইতেন পীয়ুষ কঠোর পড়াশোনা করে চাকরি করুক। বাবা ছেলের লেখাপড়ার দিকে বেশ নজর দিতেন। পীয়ুষ বাবার কথা মত ইঞ্জিনিয়ারিং করেন। তবে বিদেশি কোম্পানির চাকরি ছেড়ে দেশে চলে এলে বাবা মা দুজনেই রেগে যান। ছেলেকে বোঝালেও সেই প্রথম পীয়ুষ বুঝতে চাননি। দেশে ফিরেও চাকরির চেষ্টা করেননি তিনি, উল্টে নিজের ব্যবসা শুরু করে ছিলেন। ই-কমার্সের ধারণাকে কাজে লাগিয়ে একটি ক্লাসিফাইড ওয়েবসাইট চালু করেন। সেই সময় ভারতের ই – কমার্স ধারণা এবং ক্ষেত্রে প্রচুর সম্ভাবনা ছিলো।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের আবাসন, বই, চাকরি ইত্যাদি প্রদান করে। ২০১০ ভারতীয় অনলাইন ব্যবসা বেশ উন্নতি হচ্ছে। এই সময় পীয়ুষ বনসাল চশমার অনলাইন ওয়েবসাইট lenskart.com চালু করে ছিলেন। সাথে আরো তিন ওয়েবসাইট খুললেও পরবর্তী লেন্সকার্ট নিয়ে সম্পূর্ন রূপে মননিবেশ করেন পীয়ুষ। লেন্সকার্টকে দেশে বৃহত্তম অপটিকাল স্টোরে পরিণত করেছেন পীয়ুষ বনসাল।

আজ দেশের প্রতিটি বৃহৎ শহরে সমস্ত রকম সুযোগ সুবিধা রেখে অফলাইন স্টোর খুলতে সক্ষম হয়েছে লেন্সকার্ট কোম্পানি। শুধু তাই নয়, কোম্পানির ৫০০ টি আউটলেট এর সাহায্যে ১ লাখের বেশি মানুষকে পরিসেবা দিচ্ছে লেন্সকার্ট। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন লেন্সের ব্যবসা দিন দিন বাড়ছে সেই জন্যই লেন্সকার্ট বৃহৎ জায়গায় পৌঁছে গেছে। বর্তমানে পীয়ুষ বনসালের লেন্সকার্ট কোম্পানির মূল্য ১১০০০ কোটির বেশি টাকা।

Related Articles