×
নিউজ

মধ্যবিত্তের কথা ভেবে TATA-কে টেক্কা দিতে ছোট ইলেকট্রিক গাড়ি আনতে চলেছে Hyundai, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

বর্তমান যুগে কিছু কিছু পণ্যের মূল্য এমন হারে বাড়ছে, যা দেখে রীতিমতো মাথায় হাত পড়েছে সাধারণ মানুষের। বিশেষ করে, মানুষের এখন যোগাযোগের মাধ্যম ট্রেন, বাস থেকেও বেশি হয়েছে স্কুটার বা বাইক। সেইজন্যে পেট্রোল ডিজেলের সঙ্গে মানুষ ওতপ্রতোভাবে জড়িত হয়ে পড়ছে। কিন্তু পেট্রোল, ডিজেলের দাম যে হারে বাড়ছে তাতে রীতিমতো মাথায় হাত মধ্যবিত্তদের। আর মূল্যবৃদ্ধির কারণে সমগ্র বিশ্বে বৈদ্যুতিক গাড়ির (Electric Car) জনপ্রিয়তা ধীরে ধীরে বাড়ছে।

বিজ্ঞাপন

তাই এই আপডেটেড যুগে ভারতীয় বাজারেও বাড়ছে বৈদ্যুতিক গাড়ির বিক্রি। তবে পেট্রোল-ডিজেল চালিত গাড়ির তুলনায় এই গাড়ির দাম অধিক, সেই কারণেই মানুষ ইচ্ছা থাকলেও কিনতে পারছেন না এই গাড়ি। তাই তো বৈদ্যুতিক গাড়ির কমানোর দিকে নজর দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতীয় বাজারে এখন সবথেকে সস্তা বৈদ্যুতিক গাড়িটি হল টাটা নেক্সন (Tata Nexon), যার দাম শুরু ১৪.৭৯ লাখ টাকা থেকে।

এই পরিস্থিতিতেই এবার দক্ষিণ কোরিয়ার হুণ্ডায় মোটর কোম্পানি সবচেয়ে সস্তা ও ছোট গাড়ি আনতে প্রস্তুত। ইতিমধ্যেই এই কোম্পানি একটি ছোট বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি শুরু করেছে। ভারতীয় বাজারে গাড়ির দাম যাতে কমে, সেজন্য তাঁরা ভারতেই গাড়ির উৎপাদন শুরু করবেন, বলে মনে করা হচ্ছে। এর সঙ্গে গাড়ি চার্জিং পরিকাঠামো এবং সেলস নেটওয়ার্কের দিকটিও নজর দেওয়া হবে। যদিও কবে ভারতীয় বাজারে এই গাড়ি আসবে তার কোনও নির্দিষ্ট তথ্য দেয়নি তাঁরা।

তবে ২০২৮ সালের মধ্যে ভারতে ৬ রকম মডেলের বৈদ্যুতিক গাড়ি আনার পরিকল্পনা করছে ওই কোম্পানি। মূলত পরিবেশ দূষণ যাতে কমে সেই দিকটি মাথায় রেখেই গাড়ি গুলি তৈরি হচ্ছে। হুন্ডায় কোম্পানি খুব শীঘ্রই ভারতীয় গাড়ির বাজারে আইওএনআইকিউ ৫ (IONIQ 5) মডেলটি আনতে চলেছ। যা কেআইএ ইভি৬ (Kia Ev 6)-এর থেকেও অনেক কম দামে বাজারে পাওয়া যাবে।

Related Articles