×
নিউজ

৮৬ বছরের বৃদ্ধাকে পিঠে নিয়ে বাড়ি পৌঁছে দিলো মহিলা পুলিশ, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটবাসী

বিজ্ঞাপন

পুলিশ মানেই ভক্ষক নন, পুলিশ মানে সাধারণ মানুষের রক্ষাকারী। হ্যাঁ নিজের ক্ষমতার অপ-ব্যবহারকারি পুলিশের কথা শুনতে পেলেও রক্ষক পুলিশ কর্মী এখনো আছেন। গুজরাটের মহিলা পুলিশ কর্মীর কর্মের চিত্র প্রমাণ করিয়ে দেয়, এখনো অব্দি কর্তব্য পরায়নশীল পুলিশ আমাদের সমাজে আছে বলেই সাধারণ মানুষ স্বাচ্ছন্দে থাকতে পারছে। নেট মাধ্যমে ভাইরাল পুলিশ কর্মীর ছবি দেখে প্রশংসা করেছেন সাধারণ। সকলেই ভরসা পাচ্ছেন পুলিশের এমন কর্তব্য পরায়ন কাজ দেখে।

বিজ্ঞাপন

পুলিশ সর্বদা সাধারণ মানুষের কাজের জন্য মোতায়েন থাকে। এমনই এক ঘটনা সকলের সামনে এসেছে, এক মহিলা পুলিশকর্মী তার কর্মের দ্বারা আলাদা পরিচয় পাচ্ছে। জানা যায় গুজরাটের এক মন্দিরে একজন বৃদ্ধ মহিলা পুজো দিতে গিয়েছিলেন। সেখানেই মহিলা পুলিশ কনস্টেবলকে ৫ কিলোমিটার হেঁটে এসে বৃদ্ধাকে সাহায্য করতে দেখা যাচ্ছে। এই গরমে তার এমন কাজ দেখে গুজরাট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুগ্ধ হয়েছেন।

সূত্রানুযায়ী, পাহাড়ের চূড়ায় ভাঞ্জদাদার মন্দিরে মোরারিবাবুর রামায়ণ পাঠ শুনতে গিয়েছিলেন ৮৬ বছর বয়সী বৃদ্ধ মহিলা। এরপর গরম সহ্য করতে না পেরে বৃদ্ধা অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান। তারপর মহিলা কনস্টেবল ‘বর্ষাবেন পরমান’ (Barshaben Parman) ৫ কিলোমিটার হেঁটে মন্দির পৌঁছে বৃদ্ধার প্রাথমিক চিকিৎসার দাঁড়া জ্ঞান ফেরান এবং তারপরে আরো ৫ কিলোমিটার পথ বৃদ্ধাকে পিঠে নিয়ে তার বাড়িতে নিরাপদ এবং সুস্থ অবস্থায় পৌঁছে দিয়ে আসেন। এই মহান কাজ করার জন্য আলাদা পরিচয় পাচ্ছে তিনি।

গুজরাট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘হর্ষ সাঙ্ঘভি’ (Harsh Sanghavi) মহিলা কনস্টেবলের প্রশংসা করেছেন। এরসাথে টুইটারে বৃদ্ধ মহিলাকে কিভাবে পিঠে করে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন মহিলা কনস্টেবল তার ছবিও শেয়ার করেছেন। সাধারণ মানুষ সেই ছবি দেখে প্রশংসা করেছেন মহিলা কনস্টেবলের।

Related Articles