×
নিউজ

প্রেমিকের টানে মেক্সিকো থেকে ছুটে এল প্রেমিকা, বিদেশি বৌমা দেখে অবাক শশুর শাশুড়ি

বিজ্ঞাপন

কথায় আছে ভালবাসা বয়স, কোনও বাঁধা, জাত-পাত কিছুই মানে না। ভালোবাসা অন্ধ। আর এই অন্ধ ভালোবাসা অনেক ক্ষেত্রে পারিবারিক চাপে পরিনতি পায় না। আবার অনেক ভালোবাসা এমন জাঁকজমক ভাবে পূর্ণতা পায়, যা নাকি ইতিহাসে সাক্ষী হয়ে থাকে। হ্যাঁ, আজ আমরা এরকমই একটা ঘটনা আপনাদের জানাতে চলেছি। জাত-পাত, ধর্ম সব বাঁধাকেই বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে আরও একটি ভালবাসা পরিণতি পেতে চলেছে। এবার একটি বাঙালি যুবকের প্রেমে বাঁধা পড়লেন এক সুদূর মেক্সিকান রমণী। কি অবাক হচ্ছেন তো, হ্যাঁ অবাক হলেও এটাই সঠিক।

বিজ্ঞাপন

হাওড়ার ছেলে অরিজিৎ ভট্টাচার্য (Arijit Bhattacharya)এর সঙ্গে প্রেমে বাঁধা পড়ল মেক্সিকান যুবতী লেসলি ডেলগাডোর (Lesly Delgado)। এমনকী ভালোবাসা মানুষকে পাওয়ার জন্যে প্রেমিকা মেক্সিকো ছেড়ে সোজা চলে এসেছেন হাওড়াতে। আর প্রেমিকের প্রতি তাঁর এরকম ভালোবাসা দেখে যুবতীর প্রশংসায় একেবারে পঞ্চমুখ সবাই। খুব শীঘ্রই তাঁদের প্রেমের পরিণতি পেতে চলেছে লেসলি সম্প্রতি অরিজিতের বাড়ি হাওড়ার বালি দুর্গাপুর সাহেববাগানে এসে উঠেছেন।

আর প্রেমিকাকে কাছে পেয়ে ভীষণ খুশি অরিজিৎও। এমনকি তাঁর মা কাকলি ভট্টাচার্য এবং বাবা বিনায়ক ভট্টাচার্যও হবু বৌমাকে কাছে পেয়ে খুব খুশি। ইতিমধ্যেই তাঁদের রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছে। আগামী ৫ ই জুলাই তাঁরা গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন। তবে ঘটনার সূত্রপাত কোত্থেকে?

ঘটনার সূত্রপাত সেই করোনার (Covid 19) সময় থেকে। তখন অরিজিত একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিলেন। সারা দেশে লকডাউন ঘোষণার পর অন্যান্যদের মতন অরিজিৎও ওয়ার্ক ফর্ম হোম শুরু করেন। তখনই সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ হয় লেসলির। এরপর ধীরে ধীরে তাঁদের মধ্যে বন্ধুত্ব এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এবার সেই সম্পর্কই বিয়েতে পৌঁছেছে। অন্যদিকে, শ্বশুর-শাশুড়ির নয়নের মনি হয়ে উঠেছেন লেসলি। বিদেশী হবু বউমাকে খুব পছন্দ তাঁদের। এমনকি লেসলী বাংলা ভাষাও শিখছেন যাতে অরিজিতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে পারে। তেমনি অরিজিত শিখছেন স্প্যানিস। শোনা গিয়েছে, অক্টোবর মাসের তাঁরা দেশ ছাড়বেন এবং রওনা দেবেন মেক্সিকোর উদ্দেশ্যে।

Related Articles