×
লাইফস্টাইল

Lifestyle: এক ফটকিরিতেই বাজিমাত! চুল থেকে ত্বকের যত্ন, সবেতেই পাবেন উপকার

বিজ্ঞাপন

অতি প্রাচীনকাল থেকেই আমাদের চুল ও ত্বকের পরিচর্যার জন্য ব্যবহৃত হয়ে আসছে ফিটকিরি। বিশেষ করে, পুরুষদেরকে দাড়ি কাটার পরে অনেক সময়ে এন্টিসেপটিক হিসেবে ফটকিরি লাগাতে দেখেছে। এছাড়া মহিলাদের হরমোনের সমস্যা হওয়ার জন্যে অনেক সময়ে মুখে পুরুষদের মত লোম জন্মাতে দেখা যায়। তখনও ফিটকিরির ব্যবহার অত্যন্ত উপকারী। তবে বর্তমানে নানান প্রসাধনীর ব্যবহার ফিটকিরির চাহিদা অনেকটাই কমিয়ে দিয়েছে। কিন্তু যারা প্রাচীন পন্থা বিশ্বাসী তাঁদের কাছে ফিটকিরির চাহিদা আজও অমূল্যবান। বাড়িতে যদি এক টুকরো ফটকিরি থাকে, তবে তাকে অনেক কাজে লাগাতে পারেন, জল পরিশোধন করতেও ফিটকিরির জুড়ি মেলা ভার। ফিটকিরি দিয়ে আপনি আপনার চুল ও ত্বক সুন্দর করতে পারেন।

বিজ্ঞাপন

১) ত্বকের যত্নে ফিটকিরি – এক টুকরো ফিটকিরি যদি খুব ভালো করে ভেজা ত্বকে ঘষে ঘষে লাগাতে পারেন, তাহলে আপনার ব্রণের সমস্যা অনেকটাই মিটে যাবে। এছাড়াও ফিটকিরি ভেজানো জল আপনি টোনার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন, কারণ এটি ন্যাচারাল এন্টিসেপটিক হিসেবে কাজ করে।

২) অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে সাহায্য করে ফিটকিরির জুড়ি মেলা ভার। এক্ষেত্রে ফিটকিরি ভেজানো জল অথবা ফিটকিরি গুঁড়ো করে আপনি যদি অবাঞ্ছিত লোমের জায়গায় দিয়ে দিতে পারেন তাহলে লোমের আধিক্য অনেকাংশে কমে যাবে।

৩) গায়ের দুর্গন্ধ দূর করতেও সাহায্য করে ফিটকিরি। যারা পারফিউম লাগাতে পছন্দ করেন না, তাঁরা কাজে বেরোনোর আগে ঘাড়ে, গলায় খুব ভালো করে ফটকিরি ঘষে বেরোন, তাহলেও কিন্তু আপনার গায়ের দুর্গন্ধ দূর হয়ে যাবে।

৪) চুল ভালো রাখতেও ফিটকিরি সাহায্য করে। ফিটকিরি ভেজানো জল দিয়ে যদি প্রতিদিন স্নান করেন, তাহলে আপনাকে আলাদা করে শ্যাম্পু করতে হবে।

৫) এন্টিসেপটিক হিসেবে কার্যকরী ফিটকিরি: কোথাও কেটে গেলে এন্টিসেপটিক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন ফটকিরি।

Related Articles