×
লাইফস্টাইল

হাতে থাকছে না টাকা! বাস্তু মতে বাড়ির এই দিকে রাখুন তুলসী গাছ, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

যতো টাকাই আয় করুন না কেন, তা অযথা খরচ হয়ে যাবেই। তবে আপনি জানেন কি, এই অপ্রয়োজনীয় খরচা আপনার বাস্তু ত্রুটির কারণেও হতে পারে। হ্যাঁ, বাস্তু দোষ থাকলে আপনার জীবনের উপর গভীর প্রভাব পড়তে বাধ্য। হ্যাঁ, বাস্তু ত্রুটি একজন ব্যক্তির ভাগ্য সম্পূর্নভাবে নষ্ট করে দিতে পারে। জেনে নিন, কি কি কারনে আপনি বাস্তু দোষের শিকার হতে পারেন।

বিজ্ঞাপন

টাকা রাখার জায়গা : মানুষ টাকা রাখার জন্যে আলমারি ব্যবহার করেন। তবে বাস্তু মতে, যেকোনো দিকে আলমারি রাখতে পারেন। কিন্তু যেই দিকেই রাখুন আলমারি মনে রাখবেন তার মুখটি যেন উত্তর মুখী হয়। আলমারির মুখ দক্ষিণ দিকে হলে তাহলে আপনি আর্থিক প্রতিবন্ধকতার কবলে পড়তে পারেন।

কল থেকে ফোঁটা ফোঁটা জল : বাস্তু মতে কল থেকে জল পড়া খুবই অশুভ। তাই আপনার ঘরের কল যদি নষ্ট হয়ে থাকে তবে অবিলম্বে তা মেরামত করুন। কারণ কল থেকে ফোঁটা ফোঁটা জল পড়া আর্থিক সঙ্কটের লক্ষণ।

জল নিষ্কাশন : বাস্তু মতে, বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে জল নিষ্কাশণ করা পরিবারকে দরিদ্র সম্মুখীন করে তোলে। তাই জল নিষ্কাশণ সবসময় উত্তর-পূর্ব দিকে করুন। তাতে ধন-সম্পত্তি বৃদ্ধি পায়।

শোবার ঘরের দেওয়াল : বাস্তু মতে, শোবার ঘরের গেটের সামনের দিকের দেওয়াল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই এই দেওয়ালের ফাটল ধরলে আপনার ভাগ্যেরও ফাটল ধরবে।

ঘরে রাখা অযৌক্তিক জিনিস : আমাদের সবার বাড়িতেই কিছু না কিছু থাকে, যেগুলি দীর্ঘদিন ব্যবহার হয় না বা নষ্ট হয়ে গেছে। বাস্তু মতে, এই অপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলি আপনার বাড়িতে থাকলে নেগেটিভ ছায়া পড়ে। কারণ এই জিনিসগুলি নেগেটিভ শক্তি শুষে নেয়। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই অপ্রয়োজনীয় জিনিস গুলোকে ফেলে দিন।

জলের ছবি : বাস্তু অনুযায়ী, বাড়িতে জলের ছবি রাখা খুব ভাল। তাই বাড়িতে সবসময় পুকুর বা হ্রদের ছবি না রেখে প্রবাহিত নদীর ছবি রাখুন। তাতে অর্থনৈতিক অবস্থা ভাল হবে।

তুলসী গাছ : বাস্তু অনুযায়ী, বাড়ির উত্তর দিকে তুলসী গাছ লাগানো শুভ। তাতে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।

ঘরে ভাঙা আয়না : বাস্তু অনুযায়ী, ঘরে ভাঙা আয়না থাকলে নেগেটিভ শক্তি বৃদ্ধি পায়। এই কারণে আর্থিক সমৃদ্ধির পাশাপাশি আপনার বাড়িতেই অনেক খারাপ ছায়া পড়তে পারে।

ছেঁড়া পার্স : বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে, ছেঁড়া পার্স মানে আর্থিক সীমাবদ্ধতার লক্ষণ। তাই কখনো ছেঁড়া পার্স ব্যবহার করবেন না।

Related Articles