×
লাইফস্টাইল

পেটের রোগ থেকে দাঁতে ব্যাথা, সকল সমস্যার সমাধান করতে আজই ব্যাবহার করুন নিম পাতা, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

প্রাচীনকাল থেকেই নিম পাতা ভেষজ ঔষধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এর মধ্যে রয়েছে বহু গুণ, সে কারনে আয়ুর্বেদিক শাস্ত্রে নিমপাতাকে সর্বরোগের নির্ধারণী বলে অভিহিত করা হয়। আর আপনার বাড়ির পাশে যদি থাকে একটি নিমগাছ তাহলে তো কোন কথাই নেই। কেননা, গ্রীষ্মের গরম দাবদাহে নিমগাছ যেমন শীতল বাতাস দেয় তেমনি বিভিন্ন প্রসাধনী ও চিকিৎসাক্ষেত্রে তৈরিতেও নিমপাতা বিশেষ ব্যবহৃত হয়। চলুন তাহলে জেনে নিন নিম পাতার বিশেষ কয়েকটি উপকারিতা সম্বন্ধে-

বিজ্ঞাপন

১) চুলের জন্য উপকারী-

নিমপাতা অনেকটাই আমাদের চুলের সমস্যা হাত থেকে মুক্তি দেয়। তাই প্রথমে একটি পাত্রে পরিমাণমত জলে কিছুটা নিম পাতা দিয়ে ফুটিয়ে নিন। এবার সেই জল ঠান্ডা করে তুলোর সাহায্যে আপনার মাথার স্ক্যাল্পে লাগিয়ে নিন। দেখবেন এর ফলে আপনার মাথার খুশকি ও ছত্রাকের সমস্যা খুব সহজেই দূবীভূত হয়েছে সঙ্গে প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে বিশেষ ভূমিকা পালন করে নিম পাতা।

২) কানে ব্যথা-

হঠাৎ কোন কারনে যদি আপনার কানে ব্যথা শুরু করেন তাহলে বিন্দু মাত্র দেরি না করে নিমের তেল ব্যবহার করুন। এর সাহায্যে অতি সহজেই কানের সমস্যার হাত থেকে রক্ষে পাবেন ।

৩) দাঁতে ব্যথা-

দাঁত ও মাড়ির যত্ন জন্য আমরা বিভিন্ন ধরনের টুথপেস্ট ও ব্রাশ ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না দাঁতের সমস্যা অতি সহজেই দূর করে নিমের ডাল। তাই পেয়োরিয়া প্রতিরোধ করতে নিমের দাঁতন ব্যবহার করুন

৪) ফোঁড়া এবং অন্যান্য ক্ষতগুলি প্রয়োগ-

অনেক সময় আমরা আমাদের শরীরে নানান রকম ক্ষত দেখতে পায়। এই যেমন পরিষ্কার রক্তের অভাবে ফোঁড়ার সমস্যা। এই সময় কিছুটা পরিমাণ নিম পাতা নিয়ে বেটে সেটি আঘাতে স্থানে লাগিয়ে নিন। দেখবেন তা অতি সহজেই দূর হয়ে গিয়েছে। এছাড়াও মুখে ব্রণের সমস্যার জন্য নিম পাতার জল ব্যবহার করুন। এটি ব্রনের দাগো দূর করবে।

৫) জ্বালার সমস্যা-

নিম পাতায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিসেপটিক গুণ। তাই রান্নার সময় কোন অংশ যদি আপনার পুড়ে যায় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে নিমপাতা বেটে ক্ষত স্থানে লাগিয়ে নিন।

আয়ুর্বেদিক মতে, নিমপাতার রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল গুনাবলী। যা অতি সহজেই ত্বকে, চুল সমস্যার হাত থেকে রেহাই দেয়। সাথে যদি আপনারা খালি পেটে নিম পাতার রস পান করেন তাহলে তো এর আলাদা মাত্রাই রয়েছে। কেননা এটি পেটে লিভারের সমস্যা ও শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এছাড়াও বিভিন্ন পোকামাকড় এর কামড়, দাদ, চুলকানির সমস্যা ইত্যাদির জন্য নিম পাতায় সামান্য হলুদ মিশিয়ে বেটে তা ব্যবহার করে নিন।

তাহলে আজ অতি সহজেই জেনে নিলেন নিমপাতার বিশেষ কয়েকটি গুণাবলী সম্বন্ধে। তাই আর দেরি যার যে যার সমস্যায় ভূক্তভূগী ঝটপট নিম পাতার উপকারিতা গুলি কাজে লাগিয়ে ব্যবহার করে ফেলুন। দেখবেন এর ফল নিশ্চিত।

Related Articles