×
লাইফস্টাইল

দুপুরে ভাতের সঙ্গে খাবার জন্য সুস্বাদু শুক্তো, শিখে নিন রেসিপি

বিজ্ঞাপন

পদ্মপূরাণে বেহুলার বিবাহে নিরামিষ খাদ্যের মধ্যে অন্যতম ছিল শুক্তো। তারপর থেকেই বেশিরভাগ বাঙ্গালীদের যেকোনো অনুষ্ঠানে আহারের শুরুতেই মুখসুদ্ধি হিসেবে পরিবেশন করা হয় অত্যন্ত প্রিয় ও ট্রেডিশনাল রেসিপি শুক্তো। সঙ্গে বাঙালির ভুরিভোজ শুক্তো ছাড়া একদম অসম্পূর্ণ। তাই, আজ আপনার হেঁসেলে তৈরি করে নিন সম্পূর্ণ নিরাময় ও দুর্দান্ত স্বাদের শুক্তো। চলুন জেনে নিন প্রণালী-

বিজ্ঞাপন

উপকরণ-

লম্বা করে কাটা সজিনাডাঁটা
লম্বা করে কাটা বেগুন
লম্বা করে কাটা কাঁচা কলা
লম্বা করে কাটা উচ্ছে
লম্বা করে কাটা আলু
লম্বা করে কাটা রাঙা আলু
লম্বা করে কাটা পটল
লম্বা করে কাটা পেঁপে
আদা বাটা
কাঁচা লঙ্কা বাটা
পোস্ত বাটা
সরষে বাটা
রাঁধুনি বাটা
বড়ি
তেজপাতা
শুকনো লঙ্কা
গোটা সরষে
গোটা রাঁধুনি
হলুদ গুঁড়ো
আমুল গুঁড়ো দুধ
লবণ
চিনি
তেল

প্রনালী-

প্রথমে, শুকনো কড়াইয়ে বেশ কিছুটা বড়ি নিয়ে ড্রাইরোস্ট করে তুলে নিন। এবার কড়াইয়ে ২ চামচ সাদা তেল গরম করে ড্রাইরোস্ট বড়ি গুলি ভেজে নিন।

এরপর আবারো কড়াইয়ে ১০ চামচ সাদা তেল গরম করে ১/২ চামচ গোটা সরষে, ১/৪ চামচ গোটা রাধুনী, ৪ টি তেজপাতা, ২ টি শুকনো লাল লঙ্কা ফোড়ণ দিয়ে নাড়াচাড়া করুন। এরপর সমস্ত সবজি ও ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো দিয়ে একটি ঢাকনার সাহায্যে ঢেকে ১০-১৫ মিনিট রান্না করুন।

অন্যদিকে একটি পাত্রে ১ লিটার জল গরম করে এর মধ্যে ১ প্যাকেট আমুল দুধ মিশিয়ে নিন। এবার ভেজে নেওয়া সবজির মধ্যে ২ চামচ আদা বাটা, ৩ চামচ পোস্ত বাটা, ৫ টি কাঁচা লঙ্কা বাটা, ২ চামচে রাঁধুনি বাটা, ৪ চামচ সরষে বাটা, ১ চা-চামচ লবন দিয়ে সমস্ত উপকরণ বেশ ভালোভাবে কষিয়ে নিন।

সবজি সামেত সমস্ত মশলা বেশ ভালোভাবে কষানো হয়ে এলে এবার এর মধ্যে তৈরি করা দুধের মিশ্রণটি দিয়ে দিন। এবার ঝোল ফুটে এলে একটি ঢাকনার সাহায্যে ঢেকে ৫-১০ মিনিট রান্না করুন।

সবশেষে এর মধ্যে ৩ চামচ চিনি ও ভেজে নেওয়া বড়ি গুলি দিয়ে ২-৩ মিনিট ফুঁটিয়ে নিলেই তৈরি বাঙালি ট্রাডিশনাল শুক্তো। তাহলে আর দেরি কিসের দুপুরে গরম গরম ভাতের সঙ্গে এটি খেয়ে দেখুন অসাধারণ লাগবে।

Related Articles