×
লাইফস্টাইল

দূর হবে অর্থনৈতিক সংকট, মেনে চলুন শুকনো লঙ্কার সহজ-সরল ঘরোয়া টোটকা

বিজ্ঞাপন

করোনা মরসুম কাটিয়ে ধীরে ধীরে দেশ আবার সুস্থ হচ্ছে। গত ২ বছর ঘরবন্দী জীবন কেটেছে মোটামুটি সবার। করোনার দাপটে বন্ধ হয়েছে ছোট-বড় অনেক কোম্পানি। অনেক মানুষই অর্থের জোগাড়ের জন্যে রাস্তায় নেমেছে। ক্ষতি হয়েছে দেশের অর্থনৈতিক দিকেরও।

বিজ্ঞাপন

তবে আস্তে আস্তে দেশের আর্থিক স্বচ্ছতা ফিরছে, খুলছে দেশের ছোট-বড় কোম্পানিগুলি। মানুষ আস্তে আস্তে নিজের আর্থিক দিকও গোছাতে শুরু করেছে। তবে যাই বলুন না কেন, একদিকে অর্থই সবকিছু, আরেকদিকে সুখ সবকিছু। কথায় আছে, অর্থ না থাকলে সংসারে সুখ ফেরে না আবার অন্যদিকে সুখ টাকা দিয়ে কেনা যায় না। সুতরাং অর্থের পাশাপাশি সুখও দরকার প্রত্যেকটি মানুষের জীবনে। আজকে জানাবো সংসারে সুখ ও অর্থনৈতিক উন্নতি হবে কি করে, তার কিছু সহজ টোটকা।

রান্নার প্রয়োজনে মোটামুটি সবার বাড়িতেই শুকনো লঙ্কা থাকবেই। কিন্তু জানেন কি, শুকনো লঙ্কা যেমন রান্নার স্বাদ বাড়াতে কার্যকরী, তেমনি সৌভাগ্য ফেরাতে এবং অর্থনৈতিক সংকট দূর করতেও সমান কার্যকরী। নিশ্চয়ই ভাবছেন কি ভাবে? সৌভাগ্য ফেরানোর জন্য শুধুমাত্র সাতটি শুকনো লঙ্কার প্রয়োজন। মোটামুটি সকল হিন্দু বাড়িতেই মা লক্ষ্মীর ঘট আছে। তাই প্রত্যেক বৃহস্পতিবার পাঁচালী পড়ার সময় একটি সাদা কাপড়ে সাতটি শুকনো লঙ্কা মুড়ে আপনি যদি মা লক্ষ্মীর সামনে রাখেন তাহলে আপনার সংসারে সৌভাগ্য ফিরতে বাধ্য।

এছাড়াও, রোজ রাতে আপনি যে বালিশে মাথা রেখে শোন সেই বালিশের তলায় না আলমারির টাকা রাখার জায়গায় যদি সাতটি করে শুকনো লঙ্কা রেখে দেন, তাহলেও আপনার অর্থনৈতিক সমস্যা দূর হবে এবং শারীরিক উন্নতি ঘটবে। এইভাবে শুকনো লঙ্কার এই টোটকাগুলি পরপর ৭ দিন নিয়ম মেনে চলুন, আপনার সংসারে শান্তি ফিরতে বাধ্য। এছাড়াও আমরা অনেক সময়ে দেখেছি, বাচ্চাদের নজর লেগে গেলে, শুকনো লঙ্কা পোড়ানো হয়।

Related Articles