×
লাইফস্টাইল

জল ঘাঁটলে হাতের চামড়া জড়িয়ে যায়? হতে পারে বড় ক্ষতি! রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

বাড়িতে থাকলে কমবেশি সকলকেই বাড়ির কাজ করতে হয়। কোনও কোনও সময়ে বাড়ির কাজ করতে আনন্দ লাগলেও কিছু কিছু সময়ে ঝিমুনি চলে আসে। তবে বাড়ির কাজ করতে গিয়ে সবথেকে বেশি যেটা করতে হয়, তা হল একটু বেশি জল ঘাঁটা। কারন বাড়ির কাজের মধ্যে বেশিরভাগই পড়ে কাপড় কাচা, বাসন ধোয়া, রান্না করা, নয়তো ঘর মোছা।

বিজ্ঞাপন

আর এইসব করতে গিয়েই কোনও কোনও সময়ে কপাল কুঁচকে যায়। এছাড়া অনেকক্ষণ ধরে স্নান করলে বা জলের নিচে অবিরত কাজ করতে থাকলে হাত-পায়ের চামড়াও কুঁচকে যায়। আর এই লক্ষণ সবচেয়ে বেশি করে চোখে পরে শীতকালে। এই সময়ে আঙুল আরও বেশি পরিমাণে কুঁচকে যায়। সামান্য সময় ধরে স্নান করলেই এই চামড়া কুঁচকানোর প্রভাব দেখা যায়। পরবর্তী সময়ে আস্তে আস্তে জলের সংস্পর্শ থেকে সরে এলে আবার আগের পরিস্থিতি ফিরে আসে। যদিও এর কারণে শরীরে কোনো খারাপ প্রভাব বিস্তার হয় না।

আমাদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের শৈলী আলাদা। কারোর মুখের চামড়া পাতলা, কারোর আবার হাত ও পায়ের তলার চামড়া অনেক পুরু। এই সব চামড়ার মালিক যারা, তাঁদের ক্ষেত্রে জলের তলায় বহুক্ষণ থাকলে বা জল ঘাঁটলে হাত-পায়ের চামড়া বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় বা সামান্য কুঁচকে যায়।

এর কারণ কি জানেন, আমাদের সবারই চামড়ার উপরে একটা তৈলাক্ত অংশ আছে, যাকে বলে সিবাম। এই সিবামের কারণেই হাত-পায়ের চামড়া টানটান এবং শুষ্ক হয়ে যায়। তাই দীর্ঘক্ষণ জলে থাকার ফলে চামড়ার উপরে থাকা সেই তৈলাক্ত আচ্ছাদন ধীরে ধীরে সরে যাওয়ার ফলে, চামড়া কুঁচকে যায়। তাই জলের তলায় বেশিক্ষণ থাকলেই চামড়া কুঁচকে যায়। তেমনি দীর্ঘক্ষণ যদি আপনি জলের মধ্যে না থাকেন তার তাহলে আপনার হাত-পায়ের চামড়া আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে।

Related Articles