×
লাইফস্টাইল

কোলেস্টেরল দূর করতে আজই খান এই সবুজ পাতা, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

রক্তে উচ্চ কোলেস্টেরল (High Cholestoral) বংশগত কারণে বা অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার ফলেও হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই উচ্চ কোলেস্টেরল আপনার হৃদরোগের ঝুঁকির সবথেকে বড় কারণ। তবে এর জন্যে ওষুধ নয়, পরিবর্তে কিছু প্রাকৃতিক জিনিসের সাহায্য নিতে পারেন। NCBI-এর সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ভারতের প্রায় ২৫-৩০% শহুরে এবং ১৫-২০% গ্রামীণ মানুষদের মধ্যে এই উচ্চ কোলেস্টেরলের সমস্যা দেখা যায়।

বিজ্ঞাপন

কোলেস্টেরল আসলে কী?

উত্তরে এটি আপনার রক্তের একটি মোমযুক্ত উপাদান। যা আপনার শরীরের সুস্থ কোষ তৈরিতে সাহায্য করে। কিন্তু উচ্চ মাত্রার কোলেস্টেরল আপনার হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়াতে পারে। তবে উচ্চ কোলেস্টেরল কিন্তু জেনেটিক কারণেও হতে পারে। এছাড়া চিনি, ময়দা, কোল্ড ড্রিংকস এবং তেলের তৈরি খাবার খেলেও কোলেস্টেরল বাড়তে পারে। তবে এখন এটাই ভাবছেন তো, কীভাবে এই কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করবেন? হ্যাঁ, আজ এটাই আমাদের আলোচ্য বিষয়। এক্ষেত্রে গবেষণায়ও এর প্রমাণিত ধনে পাতা খেতে পারেন। এটি এমনই একটি ওষধি গাছ যা এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম।

কোলেস্টেরল বাড়ছে কিনা জানতে হলে কি করবেন?

রক্তে কোলেস্টেরলের উচ্চ মাত্রার কোনো সুস্পষ্ট লক্ষণ নেই। তবে এর ফলে, এনজিনা (হৃদরোগের কারণে বুকে ব্যথা), উচ্চ রক্তচাপ, স্ট্রোকের মত একাধিক উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

​সবুজ ধনে পাতা কোলেস্টেরলে উপকারী:

একটি সমীক্ষা অনুসারে, কিছু অধ্যয়ন পরামর্শ দেয় যে, ধনিয়া পাতা হৃদরোগের ঝুঁকির কারণগুলি অর্থাৎ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলেন যে, অন্যান্য মশলার সঙ্গে প্রচুর পরিমাণে ধনেপাতা খেলে জনগোষ্ঠীর মধ্যে হৃদরোগের হার কমে যায়।

​সবুজ ধনে পাতার ওষধি গুণাবলী:

এতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি (প্রদাহ কমানো), অ্যান্টি-ডিসলিপিডেমিক (রক্তে লিপিড কমানো), অ্যান্টি-হাইপারটেনসিভ (রক্তচাপ কমানো), নিউরোপ্রোটেক্টিভ (স্নায়ু সুরক্ষা) এবং মূত্রবর্ধক, অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা ডায়াবিটিস, মৃগীরোগ, দুশ্চিন্তা ও বিষন্নতার মত রোগ দূর করে শরীর থেকে টক্সিন পরিষ্কার করতেও সাহায্য করে।

​ধনে কি করে খাবেন?

একটি গবেষণায় এর একটি পরীক্ষা করা হয়েছিল, যেখানে কয়েকটি ইঁদুরকে খাওয়ানোর পর ধনে বীজ দেওয়া হয়েছিল। এরপরেই দেখা যায়, তাদের রক্তে এলডিএল (খারাপ) কোলেস্টেরলের হ্রাস এবং এইচডিএল (ভাল) কোলেস্টেরলের বৃদ্ধি পেয়েছে। আর এর থেকেই বোঝা যায়, যে খাবারে ধনেপাতা খেলে কোলেস্টেরলের সমস্যা দূর হয়ে যায়। লোকেরা প্রায়শই সিরাপ, চাটনি, স্যালাড আকারে ধনে পাতা খেয়ে থাকেন, এটি খুব উপকারী। এছাড়াও আপনি এর বীজ জলে ফুটিয়ে ছেঁকে খেতে পারেন।

তবে ​ধনেপাতা খাওয়ার সময় এই বিষয়টিকে মাথায় রাখতে হবে যে, নিয়মিত অল্প পরিমাণে ধনে পাতা খেতে হবে, বেশি ধনেপাতা খেলে স্বাস্থ্যের উপর খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। যা লিভার, অ্যালার্জি, ফুসকুড়ি, চুলকানির মত ত্বকের ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে। এ ছাড়া ধনেপাতা বেশি খেলে রক্তচাপ কমে যেতে পারে, যা নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা তৈরি করতে পারে।

Related Articles