×
লাইফস্টাইল

হজমশক্তি বৃদ্ধি করতে ও যৌবন ধরে রাখতে গরমে খান এই খাবার, রইল বিস্তারিত

বিজ্ঞাপন

টক দই, স্বাস্থ্যের পক্ষে যে কতটা উপকারী, তা বলার মতন নয়, ওজন ঝরাতে টক দইয়ের কোনও ব্যতিক্রম নেই। টক দই স্বাস্থ্যকরের পাশাপাশি পুষ্টিকরও। তাই অনেকেই ডায়েটের খাদ্য তালিকায় টক দই রাখেন, পাশাপাশি শশাও রাখেন। তবে গরমকালে অনেকেরই প্রিয় খাবার দই-ভাত। বিশেষ করে যারা ডায়বেটিস রোগী তাঁদের কাছে, দই-ভাতের চেয়ে মধুর আর কোনও খাবার নেই।

বিজ্ঞাপন

কারণ এই খাবারের যে দুর্দান্ত উপকারিতা রয়েছে। তাই শুধু ডায়বেটিস রোগীরা নয়, টক দই খান সবাই। জেনে টক দইয়ের কিছু বিশেষ উপকারী। পুষ্টিবিদদের মতে, টক দই একটি প্রোবায়োটিক খাবার। এই খাবার পরিপাকতন্ত্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এই খাবার হজমশক্তিখকে বৃদ্ধি করে। যদিও বাঙালিরা রোজ এমনিতেই ভাত খান। কারণ ভাতে থাকে কার্বোহাইড্রেট, যা কাজের শক্তি দেয়।

তাই টক দই বা ভাত যদি একসঙ্গে খাওয়া যায় তাহলে তো কথাই নেই। গরমে ঝোল-ঝালের থেকে দই দিয়ে ভাত খেলেই বেশি উপকার পাবেন। এছাড়া দইতে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং উপকারি ফ্যাট। এগুলির সবকটাই শরীরে স্ট্রেস এড়াতে সাহায্য করে।

তাই দিনে অন্তত এক বাটি টক দই-ভাত খান, যা শরীরে যথেষ্ট শক্তি জোগানোর পাশাপাশি স্বাস্থ্য ভাল রাখবে। যাঁরা দুর্বলতা, হজমের সমস্যায় ভোগেন, তাঁদের জন্য এটি সেরা খাদ্য। তবে এমনি এমনি খেতে ভালো না লাগলে, দক্ষিণী কায়দায় দইয়ের উপরে একটু সরষে, কারি পাতা, শুকনো লঙ্কা ভেজে ফোড়ন হিসাবে ছড়িয়ে নিতে পারেন। দুর্দান্ত খেতে হয়। তবে মনে রাখবেন, টক দই-ই খাবেন।

Related Articles