×
লাইফস্টাইল

কালো ত্বকে প্রিয়াঙ্কার মতো গ্লোয়িং স্কিন চান? মেনে চলুন এই ৫টি টিপস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তার উজ্জ্বল ত্বক ও পারফেক্ট ফিগার নিয়ে বরাবরই চর্চায় ছিলেন তিনি। এত ব্যস্ত জীবনের মধ্যেও কিভাবে তিনি নিজের যত্ন নিচ্ছেন সেই নিয়ে বরাবর কৌতুহল নেটিজেনদের মনে। তিনি বরাবরই প্রাকৃতিক রূপচর্চা তে বিশ্বাসী এজন্যই হয়তো তার জৌলুস এখনো সেই আগের মতই রয়েছে। আসুন জেনে নেই তার এই রূপের রহস্য কি।

ঘরোয়াভাবে তিনি তার রূপচর্চা নিয়মিত করেন। আয়ুর্বেদিক রূপচর্চার উপর তিনি বরাবরই বিশ্বাসী, কখনোই কোন কেমিক্যাল জাতীয় পদার্থ তিনি তার ত্বকের ওপরে রূপচর্চার প্রডাক্ট হিসেবে ব্যবহার করেননি। নিজেকে সুন্দর রাখতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার টিপস গুলি হল:

১.জল পান করুন : প্রচুর পরিমাণে জল পান করতে হবে। দিনে অন্তত ১০ গ্লাস জল প্রতিদিন পান করা উচিত। শারীরিক পরিশ্রমের পর ভালোভাবে ঘুম দরকার, আর ঘুম থেকে উঠেই যোগাভ্যাস করতে হবে এবং যোগাযোগের পর সাধারণত প্রচুর পরিমাণে জল তেষ্টা পায় তখন ১৫ গ্লাস জল খেয়ে নিতে হবে। খাওয়ার মাঝে জল পান করা উচিত নয়, খাওয়ার অন্তত ১৫ মিনিট আগে এবং খাওয়া শেষে ১৫ মিনিট পর জল পান করুন। গ্লোয়িং স্কিন এর একমাত্র রহস্য হলো জলপান। জল সমস্ত টক্সিক উপাদানকে শোষণ করে নেয়। ঘুম থেকে উঠে অন্তত তিন গ্লাস জল পান করা উচিত তার মধ্য থেকে এক গ্লাস জল উষ্ণ হওয়া দরকার।

২.চিন্তা মুক্ত থাকুন : সকালে ঘুম থেকে উঠে কিছুক্ষনের জন্য ব্যায়াম যোগাভ্যাস ইত্যাদি করুন গাছের সঙ্গে সময় কাটান এতে মন ভালো থাকবে।

৩.ভেষজ চা পান : সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে ব্রেকফাস্ট এরপর এবং দুপুরে লাঞ্চের আগে এবং সর্বোপরি ডিনারের পর একবার করে পান করুন। ভেষজ চা তৈরি করার উপাদান গুলি হল – এক গাঁট হলুদ,এক গাঁট আদা,লবঙ্গ ৩ টি, গোলমরিচ ৫ টি, তুলসী পাতা ৫ টি, পুদিনা পাতা, যষ্টিমধু ইত্যাদি প্রয়োজন। উষ্ণ গরম জলে এই সমস্ত উপাদান দিয়ে ভালোভাবে ফুটিয়ে ছেকে নিয়ে তৈরি হয়ে যাবে ভেষজ চা। শরীরের পক্ষে ভীষণ উপকারী, এই চায়ে রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট।

৪.ক্লিনজিং টোনিং মশ্চারাইজিং : ত্বককে সুন্দর রাখতে প্রতিদিন এই তিনটি ধাপ পূরণ করতে হবে। এগুলি জন্য প্রাকৃতিক উপাদান বেছে নিয়েছেন তিনি। ক্লিনজিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হতে পারে দুধ, লেবুর রস, মধুর মত উপাদান। আর টোনিংয়ের জন্য ব্যবহৃত হতে পারে গোলাপজল, গ্রিন-টি, শসার রস ইত্যাদি। এরপর শেষ ধাপে ময়েশ্চারাইজিংয়ের জন্য বেছে নিতে পারেন দুধের সর অথবা অ্যালোভেরা জেলের মত উপকারী উপাদান গুলি।

৫.ফেসপ্যাক : সপ্তাহে অন্তত দু’দিন ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। এর জন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন বেসন, টক দই, চালের গুঁড়ো, কফি পাউডার, আটা ইত্যাদি ঘরোয়া উপাদান গুলি।এভাবেই আয়ুর্বেদ এবং ঘরোয়া টোটকা কে কাজে লাগিয়ে তিনি তার রূপ কে এখনো ধরে রেখেছেন তার জৌলুস এখন অব্দি কমতে দেননি তিনি।

ঘরোয়া টোটকা গুলোর চল বহু যুগ ধরে চলে আসছে। মা ঠাকুমারা প্রত্যেকেই রূপচর্চা জন্য ঘরোয়া টোটকার উপর ভীষণভাবে বিশ্বাসী। বাইরের প্রডাক্ট গুলিতে কিছুটা হলেও কেমিক্যালের পরিমাণ থাকে, কিন্তু ঘরে যদি সেই উপকরণগুলি বানিয়ে ফল পাওয়া যায় তাহলে সেগুলোই শরীর এবং ত্বকের জন্য উপকারী তাই এখনও অনেকেই সাধারণ মানুষ থেকে অভিনেত্রীরা রূপচর্চা হিসেবে ঘরোয়া টোটকা কেই বেছে নেন।

Advertisement

Related Articles