×
লাইফস্টাইল

এই ফল খাবার পর ভুলেও খাবেন না জল! হতে পারে বিপদ

বিজ্ঞাপন

কথায় আছে, ভরা পেটে ফল আর খালি পেটে জল! হ্যাঁ, এইভাবেই নিয়মিত ফল খাওয়া সম্ভব আমাদের। কারণ বর্তমানে আট থেকে আশি সবাই ব্যস্ত কোনো না কোনো কাজে। ছোটোরা পড়াশোনার কাজে, এবং বড়রা ভিন্ন ভিন্ন কাজে। আয়ুর্বেদ শাস্ত্র বলে থাকে, পেট যখন ভর্তি হবে তখনই ফল খান। তাতে খাবারও সহজে হজম হবে। আর পেট যখন খালি, তখন জল খান। এটাই শাস্ত্রগত স্বীকৃত। আর নিয়ম মেনে চললে আমাদের সবার শরীর দূষণমুক্ত থাকবে। কিন্তু শাস্ত্র মতে এটাও ব্যাখ্যা রয়েছে যে, ফল খেয়েই আবার জল খাওয়া উচিত নয়। কিন্তু অনেকেই এই ভুলটি করে ফেলেন। সাবধান সেক্ষেত্রে কিন্তু বিপদের আশঙ্কা আরো বেশি। তবে কেন ফল খেয়ে একেবারেই জল খেতে নেই। জেনে নিন-

বিজ্ঞাপন

১। আসলে ফলে নানা ধরনের পুষ্টিগুণ থাকে। তাই ফল খেয়েই সঙ্গে সঙ্গে জল খেতে নেই। আর জল খেলে ফলের পুষ্টিগুণের অধিকাংশই শরীর গ্রহণ করতে পারে না। তাতে ফল খেয়েও কোন লাভই হয় না। তাই ফল খাওয়ার পরেই জল খেতে নেই।

২। ফল বা যেকোনও খাবার হজম হওয়ার জন্য নানা রকমের এনজাইম বা উৎসেচকের প্রয়োজন। তাই ফল খাওয়ার পরে জল খেলে এই উৎসেচকগুলির ঘনত্ব কমে যায়। তাতে অ্যাসিডিটি বা অম্বলের আশঙ্কা বেড়ে যায়।

৩। ফলে থাকে প্রচুর পরিমাণে ফ্রুকটোজ এবং ইস্ট। তাই ফল খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জল খেলে পেটে অ্যাসিড জলে দ্রবীভূত হয়ে যায়। যার ফলে পেটে প্রচুর গ্যাস তৈরি হয়। তার ফলেই পেটের ব্যথা শুরু হয়। এছাড়াও ফল খেয়ে সঙ্গে সঙ্গে জল খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। যার ফলে ডায়বেটিস এবং মেদ বাড়ার আশঙ্কা থাকে।

৪। ফল খেয়ে জল খেলেই শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা তৈরি হয়ে বুক জ্বালার মত সমস্যা দেখা দেয়। আর প্রতিনিয়ত এমনটা চলতে থাকলে ভবিষ্যতে গ্যাসট্রিক আলসার পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়াও প্রত্যেকের শরীরেরই pH মাত্রা থাকে। কিন্তু তরমুজ, খরমুজ, শসা, কমলালেবু এবং স্ট্রবেরি খেয়ে জল খেলে PH অনেকটাই বেড়ে যায়। আর PH মাত্রা বেড়ে গেলে তার প্রভাব গিয়ে সোজাসুজি শরীরে পড়ে। ফলে শরীরের অনেক অঙ্গপ্রত্যঙ্গের কার্য ক্ষমতা কমে যায়।

Related Articles