×
বিনোদন

শুভদৃষ্টির সময় চিঠিকে দেখে কি প্রতিক্রিয়া সাহেব ও তার পরিবারের! রইল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

মায়ের দেখা পাত্রীকে বিয়ে করতে সাহেব রাজি হলেও সে জানে না কার সাথে তার বিয়ে হচ্ছে। অন্যদিকে চিঠি সবটা জেনেই সাহেবের সাথে বিয়ে করতে রাজি হয়েছে। রাইমা নানান ভাবে বিয়ে আটকানোর চেষ্টা করলেও শেষমেষ সে বিয়ের মণ্ডপে সাহেবকে যেতে আটকাতে পারেনি। তবে শুভদৃষ্টির সময় সাহেব যখন জানতে পারবে চিঠির সাথেই তার বিয়ে হচ্ছে তখন কী করবে সাহেব? জানতে হলে চোখ রাখুন স্টার জলসার পর্দায়।

বিজ্ঞাপন

সাহেবের দুর্ঘটনায় একটি পা অকেজ হয়ে যাওয়ার পর সব কিছু থেকেই নিজেকে দূরে সরিয়ে নেয় সাহেব। ঠিক এমন সময়েই চিঠি সাথে দেখা হয় তার। চিঠি সাহেবের অবস্থা জানতে পেরে প্রথমে রেগে গেলেও পরে সাহেবের কষ্টটা বুঝতে পারে। অন্যদিকে রাইমা সব সময় সাহেবের অপারোকতা নিয়ে মজা করেই চলেছে। সাথে মাঝে মধ্যে নানান ভাবে অপমানও করছে, যার জন্যে আরো গুটিয়ে যাচ্ছে সাহেব।

সব কিছু দেখার পরেই সাহেবের মা ঠিক করেন চিঠির সাথে সাহেবের বিয়ে হলে সব দিক রক্ষা পাবে। বিয়ের প্রস্তাবে সাহেব রাজিও হয়ে যায়। তবে কেউ কারোর সাথে বিয়ের আগে দেখা করে না। বিয়ের দিন সাহেবের বাবাকে নিয়ে বিয়ে আটকাতে মন্ডপে হাজির হয় রাইমা। তখন সাহেবের মা সবটা খুলে বলতে গেলে অঙ্কিত বাবু রেগে যান। এমন সময় সবাই সবটা দেখে থমকে যায়।

প্রোমো ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে, বিয়ের পিঁড়িতে সাহেবকে আসতে দেখে চিঠির মা আর বাবা চমকে ওঠে। অন্যদিকে বিয়ে বাড়ির সবাই অবাক হয়ে সাহেবের দিকে তাকিয়ে থাকে। এমন সময় অঙ্কিত বাবু আর রাইমা বিয়ের মণ্ডপে আসায় পান পাতা সরিয়ে সবটা দেখার চেষ্টা করলে সাহেব আর চিঠির শুভ দৃষ্টি হয়ে যায়। তবে সাহেব চিঠিকে দেখে চমকে ওঠে। এবার প্রশ্ন হলো চিঠিকে দেখার পরেও কী সাহেব বিয়েটা করবে ?

Related Articles