×
বিনোদন

একসময় খাবার নিয়েও পরিচালকের কাছে শুনতে হতো কটুকথা! বিস্ফোরক অভিনেতা সৌরভ চট্টোপাধ্যায়

বিজ্ঞাপন

‘মিঠাই’ সিরিয়ালের রাজীব কুমারের বিস্ফোরক মন্তব্য। জানালেন সিরিয়ালের সেটে খাবার নিয়ে শুনতে হয়েছিলো কথা। ইন্ডাস্ট্রির এক অন্ধকার দিক প্রকাশ করলেন তিনি। অভিনয় করতে গিয়ে এমন অপমান তাও খাবার সংক্রান্ত! এখনো ভুলতে পারেন না অভিনেতা। যাকে এখন একচেটিয়া ভাবে দেখা যায় সিরিয়াল, সিনেমা এবং OTT প্ল্যাটফর্মে, শুরুর দিকে কেমন ছিলো অভিজ্ঞতা।

বিজ্ঞাপন

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sourav Chatterjee (@sourav.success)

টলি টাইমের সাথে আড্ডায় অভিনয় জগতের শুরুর কথা ভাগ করে নেন দর্শকদের সাথে। বাড়ির একটা মাত্র ছেলে বাবার অকাল মৃত্যুতে ভেঙে পড়লেও কী ভাবে অভিনয় চালিয়ে গেছেন তার গল্পও উঠে এলো কথোপকথনে। শুরুর দিকের কাজের কথা বলতেই বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসেন, তবে কোন কাজ করতে এমন কথার সম্মুখীন হতে হয়েছিলো তার নাম নিলেন না অভিনেতা। বললেন ভালো মন্দ সবটার সম্মুখীন হতে হয়েছে তাঁকে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Sourav Chatterjee (@sourav.success)

রাজীব কুমার অর্থাৎ সৌরভকে আমরা দেখি মজার চরিত্র করতে। তবে বহু এমন চরিত্রে পাঠ করেছেন অভিনেতা যা একদম তার উল্টো। জীবনের প্রথম কাজে পরিচালক অরিন্দম শীল এবং শ্বাশত চট্টোপাধ্যায়কে পেয়ে তিনি অনেক কিছু শিখেছেন, তেমনটাই অভিনেতার দাবি। এই মজার মানুষ অফিসে গিয়ে লাঞ্চের সময় অফিস থেকে বেরিয়ে আসেন, তারপরেই চাকরিটা ছেড়ে দেন। বেশ তারপরে আর ওই পথে হাঁটেননি অভিনেতা ।

সৌরভ ছোট থেকে চুটিয়ে অভিনয় করতেন। যুক্ত ছিলেন থিয়েটারের সাথে এবং দুই নাটক গ্রুপে চুটিয়ে অভিনয় করতেন। এমন সময় তার এক বন্ধুর দৌলতে পেয়েছিলেন প্রথম ব্রেক টেলিভিশনের ‘এখানে আকাশ নীল’ সিরিয়ালে। সিরিয়ালের উজান ও হিয়ার প্রেমের সাথে জুনিয়ার ডাক্তার সৌরভের চরিত্রটি আজও দর্শকদের মনে আছে। তারপরের কাজ করতে গিয়েই শুনতে হয়েছিলো খাবার খোটা। বেশ তীক্ষ্ণ কন্ঠে পরিচালকের থেকে শুনতে হয়েছিলো ক্যান্টিনে বসে খেতে, তবে সবাইকে বলা হয়নি। তাঁকে বলার কারণ তখন সে নতুন অভিনয় জগতে। অভিনেতা বলেছেন ক্যান্টিনে খেতে আপত্তি নেই আগেও ছিলো না তবে পক্ষপাতিক ভাবে কাউকে বলা আর এক শ্রেণীকে না বলা সাথে খারাপ ভাবে বলা নিয়েই যত আপত্তি। তবে পরে হাসতে হাসতে নিজেই বলেন, ‘ তখন বুঝতে পারি ইন্ডাস্ট্রি আসলে এমনই, সবাই অরিন্দম দা আর অপু দা নয়।’

Related Articles