×
বিনোদন

ঋষিকে মেরে নদীর জলে ফেলে দিলো রোহান, পিহু কি আর কখনো খুঁজে পাবে তার টুবাই দা কে?

বিজ্ঞাপন

অবশেষে হাজার চেষ্টার পরে ঋষির ক্ষতি করতে সক্ষম হলো রোহান। এবারে সে তার উদ্দেশ্য সফল করতে হলো সফল। তবে কী রোহানের চক্রান্তে চিরকালের মতো আলাদা হয়ে গেলো প্রিয়দর্শিনী আর টুবাই দা? প্রোমো দেখে মনে হচ্ছে গভীর জলে তলিয়ে যাবে কিংবা কুমিরের পেটে যাবে ঋষি। আসুন দেখে নিন কী করে প্রিয়দর্শিনী আর টুবাই দাকে আলাদা করলো রোহান আর তারপরে কী হলো ঋষির।

বিজ্ঞাপন

মনিকা নিজের ছেলেকে বদলা নিতে কানে বিষ ঢেলে সেন বাড়িতে পাঠিয়ে ছিলো। সেই জন্যেই তো রোহান নিজের এবং মায়ের প্রতিশোধ নিতে বিয়ের প্রথম রাত থেকেই ঋষির প্রাণ নিতে চাইছে। তার জন্যেই ফুলশয্যার খাটের ঠিক মধ্যিখানে সিলিং ফ্যান পড়ে যায়। তবে ঋষির কোন ক্ষতি হয়নি। তারপরে বলের বদলে শক্ত পাথর দিয়ে ঋষির মাথায় আঘাত করে রোহান। তখনো সামান্য আঘাত লাগে তবে ঋষির কিছুই হয় না। সব কিছু থেকেই বেঁচে গেলেও এবারের চক্রান্ত থেকে বেরোতে পারল না ঋষি আর পিহু।

অপ্রতিম ঋষি আর পিহুকে সাবধান করতে বার বার ফোন করলেও ফোন লাগে না তাদের। অন্যদিকে দেখায় নাচ করতে করতে উধাও হয়ে যায় ঋষি। সে বাড়িতে অন্য কেউ আছে ভেবে তার পিছু নিতে নিতে খাদের ধারে পৌঁছে যায়। আর তার পেছনে রোহানকে দেখতে পাওয়া যায়। এমন সময় ঋষি পেছন ফিরে অবাক হয়ে যায়। আর অন্যদিকে ঋষিকে খুঁজতে থাকে পিহু। অবশেষে রোহানকে পেছনে দেখে চমকে ওঠে ঋষি।

তারপরেই ঋষির কলার ধরে রোহান জানায় তাকে মেরে সে নিজে হবে সব সম্পত্তির মালিক, তার মা – বাবাকে নিজের করবে এবং পিহুকেও। এই সব শুনে ঋষি রোহানের গলা টিপে ধরলে কোর্টের পকেট থেকে ইনজেকশন বের করে ঋষির গায়ে পুশ করে সুন্দরবনের নদীতে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। পিহু ঋষিকে খুঁজতে খুঁজতে জলে কিছু পড়ার আওয়াজ পায়। প্রোমো ভিডিওর শেষে দেখতে পাওয়া যায় পিহু, অনুষ্কা আর ঋত্বিক ভয়ে আর কাঁদো কাঁদো চোখে তাকিয়ে রয়েছে। অন্যদিকে ঋষি জলে তলিয়ে যাচ্ছে।

Related Articles