×
বিনোদন

বনির বধূবরণ আটকাতে খড়ির সামনে কাঁচের টুকরো বিছিয়ে দিল ঋদ্ধি, শুরুর আগেই কি তবে ভেঙে যাবে খড়িদ্ধির সম্পর্ক?

বিজ্ঞাপন

আবারও ভুল বোঝাবুঝি জন্ম নিয়েছে ঋদ্ধি – খড়ির মাঝে। এখন আর তারা বন্ধু নয় একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। সেই জন্যেই তো বনির বধূবরণ আটকাতে ঘরের সামনে কাচের টুকরো বিছিয়ে দিলো ঋদ্ধি। বনিকে বরণ করতে গেলে কাচ পেরিয়ে যেতে হবে তাকে। তবে কী শুরু হওয়ার আগেই শেষ হয়ে গেলো খড়ি – ঋদ্ধির সম্পর্ক? বারবার ভুল বোঝার পরেও ঋদ্ধির সাথে সব বিপদে পাশে থেকেছে খড়ি, তবে এই বারে আর মনে হয় না ঋদ্ধির সাথে কোন রকম সম্পর্ক রাখবে খড়ি। আসুন দেখে নিন ঋদ্ধি বধূবরণ আটকাতে কী করলো।

বিজ্ঞাপন

খড়ি আর ঋদ্ধির প্রথম থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বী সম্পর্ক। ‘গাঁটছড়া’ ধারাবাহিকে চলছে টানটান উত্তেজনা। আমরা সকলেই দেখেছি এক প্রকার ঠাকুরের আশীর্বাদে এবং বিপদে পড়েই খড়িকে বিয়ে করেছিলো ঋদ্ধি। সেই কথাটা বারবার খড়িকে মনে করিয়ে দিয়েছে আগেও এই বারেও। এমন কী তাদের বৈবাহিক সম্পর্ক যে ঠিক নয় সে কথাও সর্বদা বলে থাকে ঋদ্ধি। এবারেও খড়িকে ভুল বুঝে জানিয়েছে, বিয়ের দিন বধূ বেশে খড়িকে দেখে মণ্ডপ ছেড়ে সে চলে এলেই ভালো করতো।

বাড়ির সকলে প্রথমে মনে করছিলো খড়ি পরিকল্পনা করে বনি – কুণালের বিয়ে দিয়েছে। অবশ্য তাদের কানের কাছে বারবার খড়ির বিরুদ্ধে রাহুল বিষ ঢালছে। অবশ্য সবাই ভুল ভাবলেও ঠাম্মা আর দাদু আগের মত এখনো খড়ির পাশে রয়েছে। অন্যদিকে যে কোন কারণেই হোক প্রথম বার নিজের বোনের পাশে দাঁড়িয়েছে দ্যুতি। কুণালের মা বনিকে নিজের পুত্রবধূ রূপে বরণ করবে না বলে বারণ করে দেওয়ায় বধূ বরণের দায়িত্ত্ব পড়ে খড়ির উপরে।

আমরা ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করা প্রোমো ভিডিওতে দেখতে পাচ্ছি ঋদ্ধি খড়িকে বলছে, ‘আপনার কোন পরিকল্পনা সফল হতে দেবো না আমি। বরণ করে নিজের বোনকে এই বাড়িতে আনতে আপনি পারবেন না।’ কথাটা সম্পূর্ন করার পরেই খড়ির হাত থেকে আলতার বোতল নিয়ে দরজার সামনে ছুঁড়ে মারে ঋদ্ধি। খড়ি রাস্তায় কাচ ছড়িয়ে দেয় সে আর বলে, ‘এবার আপনার যাওয়ার রাস্তা বন্ধ। কী ভাবে করবেন বধূ বরণ?’

Related Articles