×
বিনোদন

শ্রেষ্ঠ পাত্র হয়ে ওঠার চ্যালেঞ্জ নিলো ঋষি, সে কি পারবে পিহুর মন জয় করতে?

বিজ্ঞাপন

পিহুকে বিয়ে করবে বলে ঋষি সাজলেন সেফ, ফুলকো ফুলকো লুচি বানাবে সে, কিন্তু পিহু কেন এমন শর্ত দিল তাঁর মিঃ সেনশর্মাকে? স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মন ফাগুন’ (Mon Phagun)! পিহু-ঋষির রসায়ন এক্কেবারে জমিয়ে দিয়েছে ধারাবাহিককে। তাইতো ইতিমধ্যেই টিআরপির সেরা দশে নিজেদের জায়গা করে নিয়েছে এই ধারাবাহিক! পিহু-ঋষি দুজনেই ছোটবেলার সঙ্গী, কিন্তু আচমকা মারাত্মক এক দুর্ঘটনায় আলাদা হয়ে যায় তাঁরা ছোটবেলাতেই! যদিও এখন তাঁরা স্বামী-স্ত্রী, কিন্তু তাঁরাই যে ছোটবেলার সঙ্গী ছিলেন পরস্পরের তা না জেনেই বিয়ে হয়ে গিয়েছিল তাঁদের! ভাগ্যের পরিহাসে তাঁরা বিয়ের বন্ধনে বাঁধা পড়েন!

বিজ্ঞাপন

ঋষি-পিহুর বাবারাও একে অপরের বন্ধু ছিলেন, সেই সূত্রেই পিহু-ঋষির আলাপ হয়েছিল! কিন্তু একসময় লোভের বশবর্তী হয়ে ঋষির বাবা চক্রান্ত করে পিহুর পরিবারকে মেরে ফেলেন! তাঁরই পার্সোনাল সেক্রেটারি ছিলেন মনিকা! এদিকে বিয়ের পর ঋষি-পিহু তাঁদের একে অপরের পরিচয়ের কথা জেনে যায়। যাই হোক, ইতিমধ্যেই ধারাবাহিক অনেক নতুন মোড় নিয়েছে, পিহু নিজের বাবা খুনির খোঁজ পেয়েছেন। মণিকাই তাঁর বাবার দেড় হাজার কোটি টাকার সম্পত্তির জন্যে তাঁর পরিবারকে খুন করেছিল।

আর পিহুর জীবন দিয়েও অনেক ঝড় ঝাপ্টা গিয়েছে। পিহু, দায়িত্ব নিয়ে মণিকার আসল রূপ ধরিয়ে দেয় পুলিশকে। ঋষি ও পিহুর বিয়ে হওয়ার কথা থাকলেও এই ধারাবাহিক অনেক বাঁক নেওয়ার কারণে আর নিয়ে হয় না তাঁদের, যদিও তাঁদের বিয়ে হয়েছিল, কিন্তু একটা কারণ বশত মিথ্যে মিথ্যে ডিভোর্স হয়। যাই হোক, নিজের পিসামশাই-কে খুন করার অপরাধে ঋষিকে পুলিশ ধরে নিয়ে গিয়েছিল, কিন্তু উপযুক্ত প্রমানাদি দিয়ে তাঁর মিঃ সেনশর্মাকে ফিরিয়ে আনেন পিহু জেল থেকে। এবার মোটামুটি সবকিছু ঠিকঠাক। জীবনে যা যা তাঁদের শত্রু ছিল সবাইকেই মোটামুটি বিদায় দিয়েছেন পিহু অর্থাৎ প্রিয়দর্শিনী।

এবার ঋষি-পিহুর মিল হওয়ার পালা, এখানেই টুইস্ট। কারণ পিহুর এখন মর্জি হয়েছে অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করবেন, সুতরাং ঋষিকে তাঁর কাছে পরীক্ষা দিতে হবে। সেই মতন পিহু বলল তাঁর ঘরের রান্না থেকে শুরু করে যাবতীয় কাজ জানা ছেলে চাই। আর ঋষির পরিবারও বলল আমাদের ছেলে সব পারে। তখন পিহুর মাসি বলে লুচি বানাতে জানে। না এটা ঋষি পারেনা, ঋষির বাড়ির লোকজনই বলল, তখন পিহু বিয়ে বাতিল করে দিলে। মিঃ সেনশর্মা প্রতিজ্ঞা করেন, ঋষি পারেনা এমন কিছু নেই, বলেই পিহুকে তাঁর বাহুতে নিয়ে নিল। আর এই রোমান্সের অপেক্ষাই দর্শক এতদিন করছিলেন, এবার কি মিল হবে দুজনের সেটাই দেখার অপেক্ষায়!

Related Articles