×
বিনোদন

‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকে মৃত্যু হল গুনগুনের বাবার, অভিষেকের শেষদৃশ্যে চোখে জল সকলের

বিজ্ঞাপন

বাস্তবের মতন ‘খড়কুটো’ (Khorkuto) ধারাবাহিকেও মৃত্যু হল অভিষেক চ্যাটার্জীর অর্থাৎ গুনগুনের ড্যাডির। অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের (Abhishek Chatterjee) মৃত্যুর প্রায় ১ মাস হতে চলল। একসময় টলিউডের বড়পর্দা এক্কেবারে কাঁপিয়েছে এই অভিনেতা। সৌন্দর্যে এক্কেবারে নায়ক সুলভ মানুষ ছিলেন তিনি, হ্যান্ডসাম অভিনেতা, একেবারেই কার্তিক ঠাকুর। তবে বড়পর্দা থেকে অনেক আগেই বিদায় নিয়েছিলেন তিনি। এর মধ্যেও অনেক বিতর্ক উঠে এসেছিল, তবে যাই হোক বিতর্ক প্রসঙ্গে না যাওয়াই ভাল।

বিজ্ঞাপন

তবে মৃত্যুর আগে একাধিক ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি। ছোট্ট পর্দার দর্শকদের কাছে এই অভিনেতা জনপ্রিয় হয়ে গিয়েছিলেন। তাঁর অভিনীত ধারাবাহিকের মধ্যে অন্যতম, ‘মোহর’ (Mohor) এবং ‘খড়কুটো’ (Khorkuto)। দুই ধারাবাহিকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন এই অভিনেতা। তাই প্রয়াত অভিনেতার প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করতেই এই দুই ধারাবাহিকে তাঁর জায়গায় আর নতুন মুখ আনা হয়নি। ‘মোহর’ ধারাবাহিক শেষ হয়েছে কিছুদিন আগেই।

অন্যদিকে ‘খড়কুটো’তে গুনগুনের ড্যাডির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিষেক। তাঁর প্রয়াণের পর ধারাবাহিকেও এই চরিত্রের বিদায় দেওয়া হয়েছে। গল্পে দেখানো হয়েছে, অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে গুনগুনকে রেখে জরুরি কনফারেন্স করতে ইতালি গিয়েছেন ডাক্তার কৌশিক। আর সেখানেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কৌশিকবাবুর মৃত্যু হয়।

আর এই খবর, কৌশিকবাবুর সহকর্মী প্রথম গুনগুনের বর অর্থাৎ বাবিনকে জানায়। আসলে বাস্তবেও অভিষেকের মৃত্যু হয়েছিল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে। তাই ধারাবাহিকের পর্দাতেও তেমনটাই দেখানো হয়েছে। বাবার মৃত্যুর খবর, গুনগুন ছাড়া তাঁর পরিবারের সবাই জানে। যা শুনে বাবিনের পরিবার কান্নায় ভেঙে পড়ে। যা দর্শকদেরও নজর কেড়েছে।

Related Articles