×
বিনোদন

ভিডিও ফাঁস হওয়ায় সংকটের মুখে সইয়ের চাকরি, রইল প্রমো

বিজ্ঞাপন

সংকটের মুখে সইয়ের চাকরি! ভাইরাল ভিডিও ফাঁস, যার আঁচ গিয়ে পড়ল সহচরীর উপর! ব্যাপারটা কী? একদিকে সমরেশের সঙ্গে সইয়ের সম্পর্ক ঠিক হতে চলেছে, অন্যদিকে সইয়ের কর্মস্থলে আসতে চলেছে বড় ঝড়। সেখানেও মূল কাণ্ডারীর ভূমিকায় দেবিনা। কারণ কী? স্টার জলসার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘আয় তবে সহচরী’ (Aay Tobe Sahochori)। একের পর এক চাঞ্চল্যকর টুইস্ট ঢুকেই চলেছে এই ধারাবাহিকে। সুতরাং দর্শকদের কাছে এই ধারাবাহিক দিনের পর দিন আকর্ষণীয় হয়েই চলেছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে দেবিনা সইয়ের ছোট্ট জা হয়ে সহচরীর সংসারে ঢুকেছে। এদিকে দেবীনা-সমরেশের বিয়ের দিনই সমরেশকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই কারণেই দেবিনার বিয়েটা সইয়ের দেওরের সঙ্গে হয়ে যায়। দেবিনা সইয়ের জীবনে যখন একবার ঢুকেছে এক্কেবারে শেষ না করে ছাড়বে না, তার মধ্যে সমরেশকে পান নি তিনি, সেই ক্ষোভে রীতিমতন ফুঁসছেন দেবিনা। তাই সে এবার হানা দিল সই এর অফিসে, রেডিও স্টেশনে। ইতিমধ্যেই সইয়ের কর্মসংস্থানে উঠেছে ঝড়।নতুন বস এসেছে সই এর অফিসে সে এসেই সবাইকে এক্কেবারে বুঝিয়ে দেয়, এই অফিসে কাজ করতে হলে কঠোর নিয়ম মানতে হবে, ডিসিপ্লিন ভাঙা যাবে না একেবারেই।

এরপর সই হাজির হলে তিনি সইকে বলেন, ‘এবার থেকে যুব সমাজের জন্যে আমাদের রেডিওতে শো হবে। আপনি যদি যুব সমাজের অনুপ্রেরণা হয়ে উঠতে পারেন, তবেই আপনাকে কাজে রাখা হবে, নয়তো নয়। এমনকী তিনি সইকে শেষ একটি সুযোগ দিয়েছেন নিজেকে তরুন প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় করে তোলার জন্যে। তবেই সহচরীর চাকরি বাঁচবে। এবার সহচরীর চাকরি বাঁচানোর দায়িত্ব নিলেন সমরেশ। তিনি একটি বড় পরিকল্পনা করলেন। তিনি বাড়ির সবাইকে দিয়ে অজস্র চিঠি লেখালেন, সহচরীর ভক্ত হিসেবে।

যেখানে লেখা থাকবে ‘সহচরীর খুব বড় ফ্যান সবাই, যাতে তিনি শো চালিয়ে যান।’ আর এই চিঠিতে যদি সহচরীর প্রশংসার কথা বস জানতে পারেন, তাহলে সহচরীর চাকরি থাকবে। এই পরিকল্পনা করলেন তিনি। আর বাড়ির সবাই চিঠি লিখতে বসে পড়লেন। এই সুযোগে সই কে ফাঁসানোর একটি প্রচেষ্টা করে ফেললেন। তিনি চিঠি লিখছেন সবাই, সেই মুহূর্তের ভিডিও তুলে নিয়ে সহচরীর বসকে পাঠিয়ে দিলেন দেবিনা। ব্যস! চাকরি এক্কেবারেই চলে যায় বলে! এই ঘটনা সহচরীর বস জানতে পেরে, স্বাভাবিকভাবেই সহচরীকে ভুল বুঝলেন, তিনি তাঁকে ডেকে বললেন, ‘নিজের চাকরি বাঁচানোর জন্যে কেন এরকম সর্বনাশ করলেন, এই ভিডিও টা আপনার জা পাঠিয়েছে।’ এই শুনে তাজ্জব হয়ে যায় সহচরী। আদৌ তিনি কিছুই জানতেন না! এরপর চাকরি আদৌ বাঁচবে কিনা সহচরীর সেটাই দেখার পালা!

Related Articles