×
বিনোদন

ঘর ভর্তি অতিথিদের সামনে বউয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ মল্লার, বরের এই পরিবর্তন দেখে হা রঞ্জা

বিজ্ঞাপন

রঞ্জার প্রশংসায় একেবারে পঞ্চমুখ মল্লার, যা শুনে অবাক রঞ্জা, ব্যাপারটা কি? জমে উঠেছে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘পিলু’ (Pilu)। এই ধারাবাহিকের বয়স অল্প কয়েকদিন হলেও ইতিমধ্যেই এই ধারাবাহিক দর্শকদের মনে বেশ ভালোই জায়গা করে নিয়েছে। তার অন্যতম কারণ, পিলু এবং আহিরের জমজমাটি রসায়ন। আর টেলি ইন্ডাস্ট্রির এই নতুন জুটিকে বেশ ভালই পছন্দ করেছেন দর্শকমহল। যাই হোক, একটি দুর্ঘটনার মধ্যে গ্রামের মেয়ে পিলু এবং তার সঙ্গীত গুরু আহিরের সঙ্গে বিয়ে হয়ে যায় ঠিকই।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু প্রথম প্রথম পিলুকে কেউই মেনে নিতে পারেন নি। তবে পরে পিলুর ব্যবহারের কাছে হার মেনেছেন আহির। আস্তে আস্তে তাঁদের ভালোবাসাও ঝড়ের বেগে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে কয়েকদিন আগেই পিলু জানতে পারেন যে, আহিরের গুরু আদিত্য নারায়ণেরই মেয়ে পিলু। যদিও আদিত্য নারায়ণের দুবার বিয়ে হয়েছে, তাঁর প্রথম স্ত্রীর সন্তান হলেন পিলু। এদিকে আদিত্যর দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে জন্ম নেয় রঞ্জা। এদিকে রঞ্জার সঙ্গেই আহিরের বিয়ে হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা হয় নি।

রঞ্জা প্রথম প্রথম পিলুকে সহ্য করতে না পারলেও এখন তাঁদের মধ্যে মিল হয়ে গিয়েছে। এদিকে রঞ্জাদের বাড়ি কবজা করে নিয়েছে মল্লার, সে শয়তানি করে রঞ্জাকে বিয়েও করে নেয়। কিন্তু রঞ্জা এখনও মল্লারকে স্বামী বলতে পারেন নি। আর মল্লারও চক্রান্ত করেই রঞ্জাকে বিয়ে করেছেন। বিয়ের পর পরই রঞ্জা বিভিন্ন ভাবে মল্লারের উপর প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করে। ইতিমধ্যেই তাঁদের বাড়িতে বসেছে রঞ্জা এবং মল্লারের রিসেপশন।

দুজন দুজনের মধ্যে একদমই বনিবনা নেই। এরই মধ্যে মল্লারের বন্ধুবান্ধবরা এলে পিলু চালাকি করে মল্লারকে উসকিয়ে মল্লারকে বলতে বলে যে ঠিক কি কারণে রঞ্জাকে তাঁর পছন্দ।বলতে ইচ্ছে নাহলেও তখন মল্লার শুরু করে রঞ্জার প্রশংসা। সে বলে রঞ্জা খুব স্মার্ট, বুদ্ধিমতি এবং সুন্দর সেতার বাজাতে পারে। যা শুনে রঞ্জা অবাক হয়ে যায়। এবার কি তাহলে রঞ্জা-মল্লারের ভালোবাসা শুরু হবে, সেটাই দেখার।

Related Articles