×
বিনোদন

শেষদিনের শুটিং ‘কড়ি খেলা’ ধারাবাহিকের, চোখে জল সকলের! রইল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

যারা কাজ করে তারা জানি কাজের জায়গাটা যদি ভালো না হয় তখন খুব অসুবিধা হয় কাজ করতে। তবে কাজের জায়গা যখন হয়ে ওঠে আর এক পরিবার তখন কাজের শেষের দিন কষ্টটা তীব্র হয়। তেমনটাই দেখা গেলো ‘কড়ি খেলা’র (Kori Khela) শেষ শুটিংয়ের দিনে। নতুন প্রজেক্ট করবে সকলেই, তবে সেই নিয়ে আনন্দের থেকে চলতি কাজের শেষ হওয়ার কষ্ট দেখা যাচ্ছে প্রকাশ্যে। কষ্ট প্রকাশ করছেন দর্শকও।

বিজ্ঞাপন

দীর্ঘ ১৪ মাসের পর শেষ হয়ে যাচ্ছে ‘কড়ি খেলা’। প্রত্যেক অভিনেতা অভিনেত্রীর চোখে জল, সবাই সহকর্মী হিসেবে নয় বন্ধু হিসেবে কাজ করেছেন। তারা ধারাবাহিকের মতনই একে অপরের সাথে বুনেছেন সম্পর্ক। সবার চোখেই জল, বিশেষ করে তিন জন বাচ্চার চোখেও কষ্টের দেখা যাচ্ছে। অভিনেত্রী শ্রীপর্ণা রায় মানে ‘কড়ি খেলা’র পরি বললেন, তিনি খুব খুশি এই চরিত্রটা করে। তিনটি বাচ্চার সাথের প্রতিটি দৃশ্য তার খুব কাছের। এছাড়া প্রত্যেককে সে অনেক ভালোবাসে এবং মনেও করবে তাদের।

শেষের দিন প্রোডাকশনের তফর থেকে সকলের জন্যে ছিলো লাঞ্চ ট্রিট। এত সময় ধরে কাজের জন্যেই ক্যামেরার সামনের এবং ক্যামেরার পিছনের মানুষ গুলো একটা পরিবার হয়ে উঠেছিল। তাই বলেই প্রোডাকশনের একটা ছোট্ট প্রচেষ্টা এই পরিবারের সাথে শেষ আনন্দ টুকু ভাগ করে নেওয়া। ১৪ মাসে তিনজন পরিচালক পরিচালনা করেছেন ধারাবাহিকটি, অভিনেতা অভিনেত্রীদের সকলের সাথে কাজ করতে বেশ ভালোই লেগেছে। তারা একে অপরের মেকআপ করে দিতেন, এমনটা নিজেরাই জানালেন।

ধারাবাহিকের লিড চরিত্রে অভিনেতা আনন্দ ঘোষ অর্থাৎ অপূর্ব জানালেন ধারাবাহিকে এই প্রথম তার কাজ। শেষ দিনে এসে সকলকে জানালো এমন টিমের জন্যই সে কাজটা ভালো করে করতে পেরেছে। আরো বললেন যা শুরু হয় তার শেষ তো হবেই। আর শেষটা ভালো ভাবে করা উচিৎ। অবশ্যই প্রত্যেক দর্শক সত্যি মনে রাখবে গাঙ্গুলী পরিবারকে। কেবল অভিনেতা অভিনেত্রীদের নয় চোখে জল আসছে দর্শকদেরও। অনুরাগীরা জানিয়েছেন শেষ না করতে। তবে একটা কিছু শেষ হলেই একটা নতুন কিছুর শুরু হবে। তাই কড়ি খেলা মনে থাক।

Related Articles