×
বিনোদন

বিয়ের মাত্র ৩ বছরের মধ্যে বিচ্ছেদ প্রসেনজিৎ ও দেবশ্রীর, ডিভোর্সের কারণ জানলে অবাক হবেন আপনিও!

বিজ্ঞাপন

তাঁরা দুজনেই টলিউডের মোস্ট পপুলার অভিনেতা-অভিনেত্রী। বলা চলে এক কালে বাংলা সিনেমার প্রাণভ্রমরা ছিলেন এই দুই জুটি। এমনকি অন্যতম বাংলা জুটি হিসেবেও নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছেন তাঁরা। আর সিনেমাতে জুটি হিসেবে অংশগ্রহন নিতে নিতেই কখন যে তাঁরা বাস্তবেও মনের মানুষের পরিনত হয়েছিলেন সেটা হয়তো তাঁরা নিজেরাও ভাবতে পারেনি। তবে তাঁদের সম্পর্কের পরিনতি পেয়েছিল, বিয়ে করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু মাখা পথেই সব থেমে যায়। বিচ্ছেদ হয়ে যায়। কিন্তু কেন তাঁরা ডিভোর্স নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, তা হয়তো অনেকেরই জানা নেই। হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন কথা হচ্ছে, বাংলার সুপারস্টার অভিনেতা-অভিনেত্রী, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় এবং দেবশ্রী রায়কে (Prosenjit Chatterjee – Debashree Roy) নিয়ে। তাঁদের মধ্যে যে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক ছিল, সেটা হয়তো কারুর অজানা নয়। তবে, সেসব এখন অতীত। কিন্তু, তাঁদের বিচ্ছেদ কেন হয়েছিল সেটা জানাবো আজ আপনাদের।

বিজ্ঞাপন

বন্ধুত্ব দিয়েই একে অপরের সম্পর্কের সূত্রপাত। এরপর সহকর্মী, তারপর প্রেম, অবশেষে ১৯৯২ সালে দেবশ্রী ও প্রসেনজিৎ সাতপাকে বাঁধা পড়েন। কিন্তু বছর তিনেকের মধ্যেই ভেঙে যায় তাঁদের সাজানো সংসার। আলাদা হয়ে যান দুজনেই। তবে এর কারণ হিসেবে নানান কারণ শোনা যায়। জানা যায়, সেই সময় ‛উনিশে এপ্রিল’ (Unishe April) ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার পান দেবশ্রী রায়, সেই ছবিতে প্রসেনজিৎ ও অপর্ণা রায়ও (Aparna Roy) ছিলেন।

কিন্তু পুরস্কার পান দেবশ্রী রায়, সেই থেকেই নাকি অভিনেত্রীর উপর হিংসে জন্মেছিল প্রসেনজিতের। এমনকি এও শোনা গিয়েছিল যে, বিয়ের পর ক্রিকেটার সন্দীপ পাতিলের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন দেবশ্রী। এছাড়াও গুঞ্জন, বিয়ের পর নাকি দেবশ্রীকে অভিনয় ছেড়ে দিতে বলেছিলেন প্রসেনজিৎ। কিন্তু তাতে রাজি হননি অভিনেত্রী। এরকম একাধিক কারণ শোনা গেলেও, আসল কারণ ঠিক কি ছিল তা আজও জানা যায়নি। যদিও তাঁদের বিচ্ছেদের কারণ প্রসঙ্গে, প্রসেনজিৎ বা দেবশ্রী কেউই কোনোদিন মুখ খোলেননি। বরং দুজনই তাঁদের সম্পর্কের কথা এড়িয়ে গিয়েছেন।

একবার তো দেবশ্রী নাকি রেগেই গিয়েছিলেন তাঁকে প্রসেনজিৎ প্রসঙ্গে প্রশ্ন করার কারণে। তবে, দেবশ্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর দেবশ্রী না বিয়ে করলে, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ১৯৯৭ সালে অপর্ণা গুহ ঠাকুরতার (Aparna Guha Thakurata) সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন। যদিও সেই বিয়েও টেকেনি। ফের ২০০২ সালে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন তাঁরা। এরপরেই অভিনেত্রী অর্পিতা চ্যাটার্জির (Arpita Chatterjee) সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন অভিনেতা। তবে এখনো তাঁদের সম্পর্ক টিকে রয়েছে। তাঁদের একটি ছেলেও আছে। যার নাম তৃষানজিৎ চ্যাটার্জি (Trishanjeet Chatterjee)।

Related Articles