×
বিনোদন

ঋদ্ধির মুখের ওপর হানিমুনে যাওয়ার প্রস্তাব খারিজ করল খড়ি, শুনে হতবাক বাড়ির সদস্যরা

বিজ্ঞাপন

ঋদ্ধির রাগারাগির জন্যেই বাতিল হতে চলেছে সিংহরায় বাড়ির আয়োজিত হানিমুনের প্ল্যান। অন্যদিকে সবার সামনে খড়িও জানালো এমন কথা! যার পরে আর ঋদ্ধি হানিমুনে যাবে বলে মনেও হয় না কারোর। কী এমন হলো যার কারণে আবার একে অপরের প্রতি রাগ জাহির করছে খড়ি আর ঋদ্ধি? তবে এই প্রশ্নের উত্তর হয়তো জানা থাকলেও, খড়ি – ঋদ্ধি, বনি – কুণাল, দ্যুতি – রাহুল হানিমুনে যেতে পারবে কী না এই প্রশ্নের উত্তর জানা নেই।

বিজ্ঞাপন

মিস্টার পিটারকে বাঙালিয়ানা বোঝাতে নিজের ডিজাইন করা মাটির গয়না প্রথমে ভিজুয়্যাল, তারপরে দ্যুতিকে পরিয়ে এবং সর্ব শেষে গয়না গুলো একসাথে এনে কাছ থেকে ডিজাইন দেখতে দিলে, পিটার সমস্ত ডিজাইন ফাইনাল করে। এমন কী পিটার ঋদ্ধিকে জানায় তার স্ত্রী কেবল ভালো রান্না করে এমনটা নয়, খড়ি একজন ভালো ডিজাইনারও। তারপর থেকে ঋদ্ধি খড়ির পেছন পেছন ঘুরতে থাকে ধন্যবাদ জানাবে বলে।

গত পর্বে দেখতে পাওয়া গেছে, ঋদ্ধি চুরি করে খড়ির বানানো খাবার খেতে এলে ধরা পড়ে যায় খড়ির কাছে। এমন সময় ওই খানে দাদু আর ঠাকুমা এসে পড়েন। তারা এসেছেন চুরি করে মিষ্টি খেতে। এমন সময় তারা দেখতে পান খড়ি – ঋদ্ধি বসে ইলিশ মাছ আর পোলাও খাচ্ছে। তাদের এই ভাবে দেখে একটা বুদ্ধি আটে দাদু – ঠাকুমা। ঠাকুমা জানান যেহেতু খড়ি – ঋদ্ধি দুজনে মিলে ভাপা ইলিশ খেয়ে ফেলেছে! সেই জন্যে তাদের দুজনকে আবার ভাপা ইলিশ রান্না করতে হবে।

প্রোমো ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে খড়ি ঋদ্ধির ব্যবসায় যোগ দেবে না বলায় ঋদ্ধি বিশাল রেগে যায়। তখন খড়ি জানায় তার সিদ্ধান্ত বদলাবে না। আর সে ঋদ্ধির মতো অহংকারী ব্যাক্তির সাথে কোথাও ঘুরতে যাবে না। এও বলে হানিমুনে গিয়ে এমন একজনের সাথে এক ঘরে খড়ি থাকতে পারবে না। তার থেকে ভালো একা ঘরে থাকা। সেই জন্যে হানিমুনের প্ল্যান ক্যান্সেল। এই ভাবে খড়ির হানিমুন খারিজ করায় বাড়ির সকলেই অবাক। খড়ির ঋদ্ধির মুখের ওপর এভাবে না বলা কী ভাবে নেবে ঋদ্ধি? জানতে হলে দেখতে থাকুন ‘গাঁটছড়া’। আপাতত প্রোমো ভিডিওটি দেখে নিন।

Related Articles