×
বিনোদন

গেটের সামনে দশকর্মার দোকান খুলেছে খড়ি! বাঁধা দিতে হাজির ঋদ্ধি, রইল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

আবারো অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে গিয়ে দ্যুতির ষড়যন্তে ফের ফেঁসে গিয়েছিলেন খড়ি। দ্যুতির মিথ্যে প্রেগনেন্সির কথা প্রকাশ্যে তুলে ধরার আগেই এই রিপোর্ট পৌঁছে যায় ঋদ্ধির কাছে। তবে, খড়ির প্রতি বাড়ির সকলের সমস্ত ভুল সিদ্ধান্ত প্রমাণ করে নিজের আত্মসম্মান বজায় রাখার জন্য ঘর ছেড়ে নিজের বেরিয়ে আসেন খড়ি। আর রীতিমতো ‘গাঁটছড়া’ (Gantchhora) ধারাবাহিকে যেন চলছে টানটান উত্তেজনা পর্ব। খড়িকে জোর করে নিজের বাড়িতে তো নিয়ে এসেছেন ঋদ্ধিবাবু কিন্তু খড়ির বাপের বাড়িতে খোলা দশকর্মার ভান্ডার যে একদমই পছন্দ নয় ঋদ্ধির। তবে যুক্তিতর্কে কেউ হার মানতে রাজি নন, তাই তো সিংহরায় বাড়ির সিংহ দুয়ার জুড়ে খড়ি বসালো তাঁর সাধের দশকর্মা ভান্ডার! যা দেখে চক্ষু চড়কগাছ ঋদ্ধির।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি, সিংহ রায় পরিবারের প্রতিটি ঘটনাই দোষারোপ করা হয় একমাত্র খড়িকে। তবে এবার চুপ ছিলেননা খড়ি। নিজের প্রতি হওয়া অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং আত্মসম্মান রক্ষার ক্ষেত্রে নিজেই সিংহরায় পরিবার ছেড়ে আসার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। এরপর নিজের বাড়িতে এসে পুরনো ব্যবসায় মন লাগাতে চান খড়ি। কিন্তু অন্যদিকে ঋদ্ধিবাবু যে খড়িকে ছেড়ে একটুকু থাকতে পারছেন না। রাতে শোবার সময় টেবিলে চলে ক্লাস দেখতে না পাওয়ায় খড়িকে ডাক দেন তিনি। সেই সময় দাদু সেখানে উপস্থিত হয়ে বাড়ির বড় বউকে ফিরিয়ে আনার কথা বুঝিয়ে বলেন। প্রথমে রাগে অভিমানে না বললেও পরে রাজি হন তিনি এবং জোর করে খড়িকে নিয়েও আসে সে।

তবে, তার দশকর্মার ব্যবসা বেজায় অপছন্দের ঋদ্ধি বাবুর। কিন্তু সব সময় যে ঋদ্ধির জেদ বজায় থাকবে তা তো নয়। তাই খড়ি নিজের জেদকে বজায় রাখার জন্য সিংহরায় বাড়ির সামনেই খুলে বসেন দশকর্মা ভান্ডার। আজ পর্যন্ত সিংহরায় পরিবারের কোন সদস্য এইরকম কাজ করেনি, সেখানে বাড়ির বড় বউ হয়ে খড়ির কান্ড কারখানা দেখে চমকে উঠেছেন ঋদ্ধি বাবু।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Star Jalsha (@starjalsha)

আর সেই সময় খড়িকে বিশাল ক্ষুব্ধ হয়ে ঋদ্ধি বলেন ‘এসব কি হচ্ছে? হোয়াট দা হেল ইস দিস।’ সেই উত্তরে খড়ি বলেন-‘ আমার আদি কালী বাজারে দোকানটা যখন আপনি গুন্ডা দিয়ে উড়িয়ে দিয়েছেন তখন আমার এখানে দোকান করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। সেইসঙ্গে আমাকে এই দোকান বন্ধ করতে হলে আপনাকেও হীরের ব্যবসা বন্ধ করতে হবে।’ যা কথা শুনে অবাক ঋদ্ধি! এখন দেখার বিষয় ঋদ্ধি কি পারবে খড়ির ব্যবসা বন্ধ করতে, নাকি এটিই হবে তাদের প্রেম কাহিনী এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার এক নতুন মোড়।

Related Articles