×
বিনোদন

দোকান ভাঙলো রাহুল এবং আঙ্গুল উঠলো ঋদ্ধির দিকে, ঋদ্ধি কি পারবে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে?

বিজ্ঞাপন

রাহুলের করা অপরাধের দায় পড়লো ঋদ্ধিমানের ওপর। একেই বলে কেউ দোষ করে, সেই দোষ অন্য কারোর ঘাড়ে চাপে। তবে কথা হচ্ছে ঋদ্ধিমান কী নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারবে? নাকি খড়ি ভুল বুঝে যাবে সারা জীবন?

বিজ্ঞাপন

‘গাঁটছড়া'(Gantchhora) সিরিয়ালে চলছে রাগে অনুরাগের পর্ব। শত চেষ্টাতেও খড়িকে সিংহ রায় বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারেনি ঋদ্ধিমান। উল্টে বলে এসেছে পরে নিজের কাজের জন্যে পস্তাতে হবে খড়িকে। এর মাঝে ষড়যন্ত্র করছে রাহুল। অন্যদিকে খড়ি কী ভাবে নিজে থেকে সিংহ রায় বাড়িতে ফিরতে বাধ্য হবে সেই নিয়ে চিন্তায় রয়েছে ঋদ্ধি, সাথে খড়ির বাড়ির দরজা মুখের উপর বন্ধ করে দেওয়া ভুলতে পারছে না সে।

নতুন প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে কুণাল ঋদ্ধিমানকে বলছে, আমাদের এক্ষুনি যেতে হবে দাদাভাই, তুই দয়া করে কিছু কর। এর পরে দুই ভাই দরজা খুলে অবাক। দেখে খড়ি আর বনি দরজার বাইরে দাঁড়িয়ে। খড়ি রাগে – কষ্টে ঋদ্ধিমানকে তার বাবা ঠাকুরদার দশকর্মা দোকান দুমড়ে মুচড়ে ভেঙে দেওয়ার অভিযোগে কথা শোনাতে শুরু করে। তবে ঋদ্ধিমান জোর গলায় বলছে সে কোন ক্ষতি করেনি খড়ির।

এরপরে ঋদ্ধিমানের মা নিজের ছেলেকে জিজ্ঞেস করেন সে সত্যি এই কাজ করেছে কী না। অন্য দিকে খড়ি ঋদ্ধির দিকে আঙুল তুলে বলছে, ” আমি আপনাকে ভালো মানুষ ভেবে ছিলাম, আজ সেই ভুলটা আমার ভেঙে গেছে।” খড়ির কথা শুনে ঋদ্ধি বার বার বলছে খড়ি আপনি আমাকে ভুল বুঝছেন। অকারণে দোষারোপ করা হচ্ছে আমাকে। অন্যদিকে লুকিয়ে রাহুল মজা দেখছে। এবার প্রশ্ন হলো ঋদ্ধিমান কী খড়ির সামনে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারবে? আর আসল দোষী কবে শাস্তি পাবে? অনুরাগীরা জানিয়েছেন তারা রাহুলের অপরাধ সামনে আসার অপেক্ষায় রয়েছেন।

Related Articles