×
বিনোদন

দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে সঞ্জয়কে দিয়ে মিথ্যে প্রেগন্যান্সির রিপোর্ট বানিয়েছে দ্যুতি, পরিবারের সামনে ফাঁস হল সকল কারসাজি

বিজ্ঞাপন

সঞ্জয় এসে ফাঁস করে দিল যে, দ্যুতি মিথ্যে প্রেগন্যান্সির রিপোর্ট বানিয়েছিল তাঁকে দিয়ে, এতে খড়ির কোনও দোষ নেই। এরপর ধারাবাহিক কোনদিকে এগোবে! গত সপ্তাহ থেকেই ফের টিআরপির তাজ ছিনিয়ে নিয়েছেন স্টার জলসার টপার ধারাবাহিক ‘গাঁটছড়া’ (Gantchhora)। আর হবে নাই বা কেন, একের পর এক ধুন্ধুমার পর্ব এই ধারাবাহিককে দেখার আকর্ষণ বাড়িয়ে তুলছে সিরিয়ালপ্রেমীদের। সুতরাং, টিআরপির শীর্ষে শোলাঙ্কি-গৌরব (Solanki-Gourab) জুটির দাপটে কেউ টিকতেই পারছেনা। তবে একটা কথা না বললেই নয়, এই ধারাবাহিকের মূল ইউএসপি কিন্তু দ্যুতি-রাহুলের (Dyuti-Rahul) কোণঠাসা ঝামেলা।

বিজ্ঞাপন

যা ঠিক করতে করতে খড়ি প্রতিনিয়ত নিজেই ঝামেলার মুখে পড়ে যাচ্ছে। প্রথমত, রাহুল তো একেবারেই রাজি ছিল না দ্যুতিকে বিয়ে করতে, খড়ি নানারকম তথ্য প্রমাণাদি জোগাড় করে রাহুলের সঙ্গে বিয়ে দিতে বাধ্য হল, কিন্তু এরপরেও দ্যুতি চালল আরেকটি চাল। তিনি বড়লোক বাড়ির বউ হওয়ার জন্যে মিথ্যে প্রেগন্যান্সির নাটক সাজিয়ে সিংহরায় পরিবারে ফাইনালি ঢুকেই পড়লেন। রাহুলের সন্তান ভেবে সিংহরায় পরিবারের সকলেই রাহুলকে বাধ্য করলে দ্যুতিকে বিয়ে করার জন্যে। কিন্তু দ্যুতির মিথ্যে প্রেগন্যান্সির নাটক খড়ি নিজেও জানতে পারলেন না।

কিন্তু কিছুদিন বাদেই, সঞ্জয় নামক আরেকটি চরিত্র দ্যুতির মুখোশ এক্কেবারে টেনে খুলে দিলেন খড়ির সামনে। খড়ি রীতিমতন ল্যাবে গিয়ে দ্যুতির সাজানো নকল প্রেগন্যান্সির রিপোর্ট জোগাড় করে সিংহরায় পরিবারের সকলের সামনেই দ্যুতির মিথ্যে প্রেগন্যান্সির কথা জানালেন। কিন্তু এখানে ঘটল আরেকটি কাণ্ড, কারণ দ্যুতির সঙ্গে রাহুলের বিয়ের সময়ে খড়ি, ঋদ্ধিমানকে কথা দিয়েছিলেন যে, দ্যুতির জন্যে তাঁদেরকে আর অপমানিত হতে হবেনা, তাও যদি হয় তাহলে খড়ি এই দোষ মাথায় নেবেন, ঠিক তাই হল, দ্যুতির মিথ্যে প্রেগন্যান্সির কথা জানার পর সিংহরায় পরিবার খড়িকেই দুষল। তাই সব অপমান সহ্য করতে না পেরে খড়ি ফের সিংহরায় বাড়ি ছাড়ে। তাহলে কি এর সত্যিটা কেউ জানতে পারবে না, হ্যাঁ, নিশ্চয়ই!

সম্প্রতি ধারাবাহিকে দেখানো হল, সঞ্জয় সিংহরায় পরিবারে এসে জানাল, দ্যুতি তাঁকে দিয়ে মিথ্যে প্রেগন্যান্সির রিপোর্ট করিয়েছে, আসলে দ্যুতিকে তিনি ছোটবেলা থেকে পছন্দ করতেন তাই বিয়ে করতে চেয়েছিলেন কিন্তু দ্যুতি বিয়ের দিন জোর করে তাঁকে এই কাজ করতে বলে। আর তিনি দ্যুতিকে এতটাই ভালবাসেন যে, তাঁর কথা ফেলতে পারেনি। এখানে খড়ির কোনো দোষ নেই, খড়ি এবিষয়ে কিছুই জানতেন না। তাহলে কি এবার সিংহরায় বাড়ির সদস্যরা তাঁদের ভুল বুঝতে পারবে, খড়ি কি ফিরে আসবে ঋদ্ধিমানের জীবনে, সেটাই বলবে এই ধারাবাহিকের আগামী এপিসোডগুলি।

Related Articles