×
বিনোদন

লাবণ্যর অতীত খুঁজতে গিয়ে শেষমেশ শাশুড়ির পৈতৃক বাড়িতে পৌঁছালো দীপা, রইল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

অবশেষে লাবণ্য দেবীর অতীতের ভয় কাটানোর এক পরিকল্পনা করলো দীপা। সেই জন্যেই প্রথম পদক্ষেপ নিতে এ কোন পুরোন বাড়িতে হাজির হয়েছে দীপা? কালো রঙের প্রতি ভয়, রাগ আর ঘেন্না কাটাতে নিজে সবটুকুও দিতে রাজি দীপা। পাশে থাকছে শ্বশুর, কাকা শ্বশুর আর কবীর। প্রোমো ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে দীপা একটা পুরনো বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে। এই বাড়িটার সাথে লাবণ্য দেবীর যে একটা সম্পর্ক আছে সেটা বোঝা যাচ্ছে। তবে কী সম্পর্ক জানতে হলে পুরো ভিডিও ক্লিপটা দেখতে হবে।

বিজ্ঞাপন

লাবণ্য দেবীর এই কালো রঙের প্রতি রাগ, ভয় আর ঘেন্নার কারণ যে অতীতের সাথে জুড়ে আছে এক গভীর ক্ষত। নিজের খুব কাছের কেউ যখন সব থেকে বড়ো ক্ষতিটা করে দেয় তখন কেবল সেই মানুষটা নয় একই রকম সকল মানুষকে দূরে করে দেওয়া স্বাভাবিক। তবে ভয়ের জন্যে নিজের পরিবারকে দুঃখ না দিতে চাইলেও অতীতের জন্যে কষ্ট দিয়ে ফেলা একদম উচিৎ কাজ নয়। সেই জন্যেই লাবণ্য দেবীর ভয় কাটাতে নানান পরিকল্পনা করছে দীপা। তবে সূর্য এই সব কিছু জানে না।

নিজের শাশুড়ি মায়ের ভয় কাটাতে দীপা নিজের দাদা অর্থাৎ কবীরের সাহায্য নিচ্ছে। সে সূর্যকে বলতে চেয়েও নানান কারণে বলতে পারছে না, লাবণ্য দেবীর অতীতের কথা। অন্যদিকে কোন কিছু না বুঝেই মিশকার উস্কানিতে দীপাকে ভুল বুঝতে শুরু করছে সূর্য। তবে মানতেই হবে মিশকা বড়োই চালাক, সে সব দোষ দীপাকে না দিয়ে কবীরকে ভুল রূপে সূর্যের সামনে তুলে ধরেছে।

শেয়ার হওয়া ভিডিওতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে দীপা একটা পুরনো বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছে। তাকে এই ভাবে পুরনো বাড়িতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে নানান প্রশ্ন করতে থাকে সূর্য। দীপা সূর্যকে দেখে চমকে গেলে সূর্য জানায়, তাকে নিয়ে আসা না হলেও সব কিছু জানে সে। এমন সময় সূর্য বলে দীপার কবীরের সাথে এসেছিলো যখন তখন কবীর কোথায়? দীপা জানায় এই পুরনো বাড়ির ঠিকানা কবীর জানতো তাই সে এসেছিল। আর বাড়িটার দিকে তাকিয়ে জানায়, ‘এটা আপনার দাদুর বাড়ি ডাক্তার বাবু’। সূর্য নিজের মায়ের বাড়ি দেখে অবাক হয়ে যায়।

Related Articles