×
বিনোদন

নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে সাক্ষী নিয়ে লাবণ্যর সামনে হাজির দীপা, রইল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

সত্যের মুখোমুখি দীপা। শ্বশুর বাড়ির লোকজন তার বিরুদ্ধে খুনীর অপবাদ আনায় সত্যের সন্ধানে বেরিয়ে পড়ে দীপা। তারপরে জানতে পারে সব কিছুর পেছনে আছে তার নিজের বোন ঊর্মি। সবটা জানার পরেও কী চুপ করে থাকবে দীপা, নাকি ঊর্মির সত্যিটা বাড়ির লোকের সামনে আনবে সে? যাই হোক অবশেষে দীপা নিজের জন্যে রুখে দাড়াতে শুরু করেছে দেখেই খুশি দর্শক। এবার কী তবে লাবণ্য সেনগুপ্ত নিজের ভুল বুঝবে!

বিজ্ঞাপন

সিরিয়াল ‘অনুরাগের ছোঁয়া’তে চলছে টানটান উত্তেজনা। ঊর্মির ষড়যন্ত্রে মৃত্যুর মুখে না গিয়ে পড়লেও খুনীর তকমা লাগে দীপার গায়ে। ঊর্মির বৌভাতের দিন শরবতে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে নিজের দিদিকে মেরে ফেলতে চায় সে। তবে ভাগ্যক্রমে ঊর্মির শরবতের গ্লাসটা ভেঙে যায়। তখন দীপা নিজের শরবত বোনের জন্যে পাঠায়। সেই দৃশ্য দেখে লাবণ্য। তারপরে ঊর্মি অজ্ঞান হয়ে গেলে সূর্যর বন্ধু জানায় ফুড পয়জনিং হওয়ার জন্যেই এমন অবস্থা।

লাবণ্য সেনগুপ্ত মনে করেন দীপার বানানো শরবত খেয়েই ঊর্মির এমন অবস্থা। এমন কী ঊর্মি নিজের প্ল্যান বিফলে গেলেও দীপাকে বাড়ি থেকে তাড়াবে বলে কিছুই বলে না। উল্টে জানায় দীপার বানানো শরবত খেয়েই তার এমন অবস্থা। কথাটা শুনে সকলেই ভুল বোঝে দীপাকে। এমন কী জয়ও অনেক কটু কথা শোনায় দীপাকে। লাবণ্য সেনগুপ্ত পুলিশে দেওয়ার হুমকিও দেয় তাকে।

এই সমস্ত কিছু শুনে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় দীপা। তারপরে প্রমাণ জোগাড় করে এনে ঊর্মির সামনে দাঁড়ায় সে। আর বলে সমস্ত সত্যিটা সবাইকে বলতে হবে। প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে দীপা ঊর্মিকে টানতে টানতে নামিয়ে আনছে। সেটা দেখে লাবণ্য সেনগুপ্ত দীপাকে আদালতে গিয়ে নিজেকে প্রমাণ করার কথা বলে। তারপরে দীপার গায়ে হাত তুলতে গেলে, হাতটা ধরে ফেলে দীপা। অবশেষে প্রমাণ হয় ঊর্মির নিজের ভুলেই এমন অবস্থা হয়েছে তার। এবার কী করবেন লাবণ্য সেনগুপ্ত?

Related Articles