×
বিনোদন

আইনের যুদ্ধে জয়ী হয়ে নোলক ও অরিন্দম কি পারবে তাদের স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ককে বাঁচাতে? রইল প্রোমো

বিজ্ঞাপন

রোহিণীর মিথ্যের জাল ছিঁড়ে অরিন্দমকে নির্দোষ প্রমাণ করে সসম্মানে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করলো নোলক। তার এই প্রতিজ্ঞা কী পূরণ হবে? নিজের স্বামীকে সম্মানের সহিত বের করে রোহিণীকে শাস্তি দিতে পারবে তো নোলক! কী উপায় এই কাজ সম্ভব হবে? জানতে দেখতে হবে ‘গোধূলী আলাপ’, সেই জন্যে চোখ রাখুন স্টার জলসার পর্দায়। আর এখন আপাতত শেয়ার করা প্রোমো ভিডিওতে চোখ রাখুন।

বিজ্ঞাপন

প্রথম বিয়েটা গ্রামে হলেও অরিন্দমের মায়ের ইচ্ছেতে রোহিণী আর আদিত্যের বিয়ের দিন নোলক আর অরিন্দমের আবার বিয়ে দিতে চেয়ে ছিলেন। সেই মতোই অরিন্দম আর নোলক বর – কনে সেজে মণ্ডপে উপস্থিত হলেও রোহিণীর মিথ্যে চক্রান্তে বিয়ে তো বন্দ হয়েই যায় উল্টে নাবালিকাকে বিয়ে করার জন্য গ্রেফতার হতে হয় অরিন্দমকে। নোলক কিছু না ভেবেই নিজের এক দেওরকে নিয়ে দৌড় লাগায় নিজের গ্রামে।

সেখানে গিয়ে দেখে তার ঘর আগুনে দাউ দাউ করে জ্বলছে। এই সব যে রোহিণীর চক্রান্ত সেটা বুঝতে বাকি থাকে না কারোর। বাড়ির ভেতরে থাকা সব জ্বলে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এই খবর সেই রাত্রি বেলা গিয়ে অরিন্দমকে জানায় নোলক। আর বলে সে এত কিছুর পরেও সবটা ঠিক করে দেবে। উত্তরে অরিন্দম বলে, কিন্তু কী ভাবে সম্ভব?

এই কথা শুনে নোলক জানায়, আসল কাগজ পুড়েছে, নকল কাগজটা তো আছে। রোহিণীর বানানো কাগজটা নোলক প্রমাণ করলেও তো সত্যিটা প্রমাণিত হয়ে যায়। কথাটা শুনে অবাক হয়ে নোলকের দিকে তাকিয়ে থাকে অরিন্দম। তারপরে নোলক বলে আপনি পারবেন উকিল বাবু, আপনার সব ক্ষমতা রয়েছে। খোকা গুন্ডা শুধু জমি কেড়ে নিত, আর এখানে উকিল দিদি আপনার সম্মান আমার ভিটে সবটা কেড়েছে। আপনি শাস্তি দেবেন না!

Related Articles