×
বিনোদন

চরম বিপদের মুখে সূর্য, কিভাবে তাকে উদ্ধার করবে দীপা?

বিজ্ঞাপন

সূর্যকে উদ্ধার করে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাবে বলেই বাড়ি থেকে বেরিয়েছে দীপা। তবে সূর্যকে বাঁচানোর আগেই দীপা নিজেই বিপদের মুখে। লাবণ্য দেবীর ভয় দূর হওয়ার বদলে বেড়েই চলেছে। এর মাঝে যদি দীপার কিছু হয়ে যায়! তাহলে সূর্য কী ভাবে উদ্ধার হবে? ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ ধারাবাহিকে চলছে টানটান উত্তেজনা। দীপা কী পারবে নিজেকে বিপদ থেকে বাঁচিয়ে সূর্যকে সুস্থ্য ভাবে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যেতে? জানতে হলে চোখ রাখুন স্টার জলসার পর্দায়।

বিজ্ঞাপন

লাবণ্য দেবীর কালো রঙের প্রতি যে ভয়টা ছিলো! সেটা দূর করতেই দীপা সকলের সামনে নিয়ে এসেছে লাবণ্য দেবীর বাবা – মায়ের খুনীকে। কেবল তার মুখোশ খুলে দেয়নি; রীতিমত পুলিশে ধরিয়েছে অপরাধীকে। তবে সেই অপরাধী তো সাধারণ মানুষ নয় একজন বিশিষ্ট ব্যক্তি। তাই জেলে যাওয়ার আগেও নিজের এই পরিণতির জন্যে লাবণ্য দেবীকে শাসিয়ে গেছে। সেই জন্যে একদিকে নিজের বাবা আর মায়ের খুনীকে শাস্তি পেতে দেখে খুশি হলেও ভয়ে কুকড়ে যাচ্ছেন।

ঠিক এমন সময়েই হসপিটাল থেকে এমার্জেন্সি ফোন আসায় সূর্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে আর বাড়ি ফেরে না। অনেকটা সময় যাওয়ার পর সকলেই সূর্যের খোঁজ শুরু করে। লাবণ্য দেবী ছেলেকে বাঁচাতে দৌড়ে যান পুলিশ স্টেশনে। তবে অপরাধী কোন মূল্যেই রাজি হয় না সূর্যের খোঁজ দিতে। অন্যদিকে লাবণ্য দেবীকে কথা দিয়ে দীপা বেরিয়ে পড়েছে সূর্যের খোঁজ করতে।

প্রোমো ভিডিওতে দেখতে পাওয় যাচ্ছে রাস্তায় এক গুন্ডাকে থাপ্পড় মারার পরে তারা দীপার পিছু করতে থাকে। দীপা নিজেকে বাঁচাতে একটা গাড়ির পেছনে লুকিয়ে পড়ে। তবে সেখানেও গুন্ডা চলে আসে কিন্তু দীপাকে দেখতে পায় না। এমন সময় তারা চলে যেতে যাবে, সূর্য গুদামের ফোন থেকে দীপাকে ফোন করলে গুন্ডারা বুঝতে পারে দীপা ওখানেই আছে। অন্যদিকে সূর্যের কোন কথাই শুনতে পায় না দীপা।

Related Articles